বাংলা নিউজ > ময়দান > টি-টোয়েন্টির পর ওয়ান ডে-ক্রিকেটেও অধিনায়কত্ব ছাড়তে হবে কোহলিকে, কেন এমন দাবি আকাশ চোপড়ার?
বিরাট কোহলি। ছবি- গেটি ইমেজেস।
বিরাট কোহলি। ছবি- গেটি ইমেজেস।

টি-টোয়েন্টির পর ওয়ান ডে-ক্রিকেটেও অধিনায়কত্ব ছাড়তে হবে কোহলিকে, কেন এমন দাবি আকাশ চোপড়ার?

  • কোহলির বদলে টি-টোয়েন্টিতে সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মাই দলের দায়িত্ব সামলাবেন বলে জোর জল্পনা।

মাত্র কয়েক ঘন্টা আগেই সকলকে খানিকটা চমকে দিয়েই বিরাট কোহলি আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর বিশ ওভারের ক্রিকেটে ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব করবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। বিশ্বকাপের পর সাদা বলের ক্রিকেটে ভারতের সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মাই দলের দায়িত্ব সামলাবেন বলে জোর জল্পনা। তবে আকাশ চোপড়ার মতে কোহলি-রোহিতের ‘ডুয়াল অধিনায়কত্ব’ নীতি একেবারেই লাভদায়ক হবে না।

বহুদিন ধরেই আইসিসি ইভেন্টে ভারতের ট্রফি জয়ের ব্যর্থতার ফলে কোহলির ওপর চাপ বাড়ছিল। অনেকেই মনে করছিলেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপই ক্যাপ্টেন কোহলির শেষ সুযোগ হতে চলেছে। তবে নিজে থেকেই সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছেন কোহলি। আকাশ চোপড়ার মতে দুই অধিনায়ক নীতি সফল হলেও যেহেতু কোহলি শুধুমাত্র টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছাড়ছেন, ওয়ান ডের নয়, তাই সিদ্ধান্ত খুব একটা লাভদায়ক হবে না।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে আকাশ জানান, ‘পার্থক্যটা লাল বল ও সাদা বলের ক্রিকেটের মধ্যে হয়। জো রুট-ইয়ন মর্গ্যান থেকে অ্যারন ফিঞ্চ-টিম পেইন, সাধারণত সাদা বল ও টেস্ট অধিনায়ক আলাদা আলাদা হওয়ার ছবি দেখা যায়। অধিনায়কের দায়িত্ব ভাগ করে নেওয়ায় উপকার তো হয়ই, তবে লাল বলের ক্রিকেটের পাশপাশি সাদা বলের একটি ফর্ম্যাটে দায়িত্বে থেকে অপর ফর্ম্যাট থেকে সরে দাঁড়ানো, আমার মনে হয় না, সেটা খুব একটা লাভদায়ক হবে বলে।’

নিজের মন্তব্যের পিছনে যুক্তি দিতে গিয়ে আকাশ জানান, সাদা বলের ক্রিকেটে দুই ফর্ম্যাটেই প্রায় একই মানসিকতা নিয়ে দল মাঠে নামে এবং প্রায় একই ক্রিকেটাররাও দুই ফর্ম্যাটে খেলে থাকেন, তাই প্রায় সমার্থক দুই ফর্ম্যাট দুই ভিন্ন অধিনায়কের ভিন্ন মানসিকতা সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। সেই জন্যই তিনি ওয়ান ডে ক্রিকেটেও ক্যাপ্টেন কোহলির ভবিষ্যত নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন।

‘কোন দলের ওয়ান ডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের মধ্যে খুব বেশি পার্থক্য থাকে না। টি-টোয়েন্টি যেমন খেলা হয়, ওয়ান ডেতে সেই ক্রিকেটটাই আরেকটু বেশিক্ষণ খেলার সুযোগ থাকে। ভারতীয় দলের দিকে নজর দিলে দেখা যাবে দুই ফর্ম্য়াটেই প্রায় সাত থেকে নয়জন একই ক্রিকেটার খেলে। সেক্ষেত্রে খুব একটা পরিবর্তন তো নজরে পড়ে না। যদি এমনটাই হয়, তাহলে দীর্ঘমেয়াদি ভিত্তিতে আমি বিরাট কোহলিকে ভারতের ওয়ান ডে অধিনায়কের ভূমিকাতেও দেখতে পাচ্ছি না।’ দাবি আকাশ চোপড়ার।

বন্ধ করুন