বাংলা নিউজ > ময়দান > ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচের আগে বিরাট কোহলির রহস্যময় বার্তা! শুরু নতুন বিতর্ক
ভারতীয় জার্সিতে বিরাট কোহলি (ছবি-বিসিসিআই টুইটার) (BCCI Twitter)

ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচের আগে বিরাট কোহলির রহস্যময় বার্তা! শুরু নতুন বিতর্ক

  • ২০২২ এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কা বনাম ভারতের ম্যাচের আগে, বিরাট কোহলি ইনস্টাগ্রামে একটি রহস্যময় বার্তা পোস্ট করেছেন। প্রাক্তন অধিনায়কও সম্প্রতি ভারতের বনাম পাকিস্তানের পরাজয়ের পরে একটি বিশাল বিবৃতি দিয়েছিলেন। তারপরে আবার পোস্ট করেছিলেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক।

২০২২ এশিয়া কাপ-এ পাকিস্তানের কাছে পরাজয়ের পরে একটি বিশাল বিবৃতি দিয়েছিলেন বিরাট কোহলি। সেই মন্তব্যে ধোনির প্রসঙ্গ তুলে এনেছিলেন কোহলি। সেই মন্তব্য ঘিরে বিতর্কের তৈরি হয়েছিল। সুনীল গাভাসকর থেকে মদন লাল সকলেই বিরাটের সমালোচনা করেছিলেন। এর মাঝেই ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচের আগে বিরাট কোহলি একটি রহস্যময় বার্তা দিয়েছেন। 

ভারত বনাম শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হওয়ার আগে ইনস্টাগ্রামে একটি রহস্যময় বার্তা দিয়ে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন বিরাট কোহলি। পাকিস্তানের কাছে ভারতের পরাজয়ের পর, ম্যাচ-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে কোহলি বলেছিলেন যে, টেস্ট ক্রিকেটে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়ার সময়ে কোহলিকে একমাত্র এমএস ধোনিই বার্তা দিয়েছিলেন। কোহলির এই মন্তব্যটি ভক্ত এবং সাংবাদিকদের অবাক করেছে। 

এছাড়াও পড়ুন- ভুল করেই কি গ্রেগকে প্রিয় শিক্ষকের তকমা! সৌরভের টুইট ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্ক

এখানে কোহলির ইনস্টাগ্রাম স্টোরি রয়েছে:

Virat Kohli's cryptic message on Instagram.
Virat Kohli's cryptic message on Instagram. (Instagram)

বিরাট কোহলির টেস্ট অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার পর থেকে ফর্ম অন্ধকারে পড়ে গিয়েছিল। মঙ্গলবার,৩৩ বছর বয়সী ইনস্টাগ্রামের স্টোরিতে একটি পোস্ট করেছেন এবং সেখানে কোহলি লিখেছেন,‘সেসব লোকদের লক্ষ্য করুন যারা আপনার সুখের জন্য খুশি এবং আপনার দুঃখেতে দুঃখী হয়। তারাই আপনার হৃদয়ে বিশেষ স্থানের যোগ্য।’

এছাড়াও পড়ুন- রোহিত-দ্রাবিড়কে চোখো চোখা চারটি প্রশ্ন ভাজ্জির, উত্তর দিতে সমস্যা হবে ম্যানেজমেন্টের

একদিকে শ্রীলঙ্কার কাছে হার, অন্যদিকে টুর্নামেন্টে ফেভারিট হওয়ার পরেও এশিয়া কাপ থেকে ছিটকে যাওয়া। এর মাঝেই কোহলির বিতর্কিত পোস্ট। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি বেশ চাপের তৈরি হয়েছে। এমন অবস্থায় কোহলির এই পোস্ট ঘিরে বিতর্কের জল কত দূরে যায় সেটাই দেখার।

বন্ধ করুন