আরসিবির জার্সিতে বিরাট কোহলি। ছবি- বিসিসিআই।
আরসিবির জার্সিতে বিরাট কোহলি। ছবি- বিসিসিআই।

সারারাত চিৎকার করে কেঁদেছিলেন কোহলি, কারণ জানালেন নিজেই

  • কোহলির চোখে জল! সত্যিই এমন দিন এসেছিল জীবনে, জানালেন ভারত অধিনায়ক।

খেলার মাঠে তাঁর মতো উদ্দীপ্ত ক্রিকেটার খুব কমই দেখতে পাওয়া যায়। জয়ের জন্য সদা মরিয়া থাকলেও ভারত অধিনায়ককে কদাচিৎই ব্যর্থতায় ভেঙে পড়তে দেখা যায়। আবেগের বহিঃপ্রকাশ চোখে পড়ে বটে, তবে সেটা সহজাত আগ্রাসনের বেলায়। ক্যাপ্টেন কোহলির চোখে জল, এই বিষয়টাই ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে বিশ্বাসযোগ্য করে তোলা কঠিন।

তবে এমন দিনও যে এসেছিল, সেটা বিরাট নিজে না জানালে অনুরাগীরা মেনে নিত না কখনই। কোহলি বলেন, একদা রাজ্য দলে সুযোগ না পেয়ে এতটাই মুষড়ে পড়েছিলেন যে, সারারাত চিৎকার করে কেঁদেছিলেন তিনি।

কোহলি বলেন, 'প্রথমবার যখন রাজ্য নির্বাচকরা আমাকে বাদ দিয়ে দল গড়েন, আমার মনে আছে সকাল পর্যন্ত চিৎকার করে কেঁদেছিলাম। কারণ, আমি তখন রান করছিলাম। সব কিছু ঠিকঠাক চলছিল। আমি পরবর্তী পর্যায়ে নিজেকে তুলে ধরার জন্য পারফর্ম করছিলাম। শেষে আমাকে উপেক্ষিত থেকে যেতে হয়।'

কোহলি আরও বলেন, দলে সুযোগ না পেয়ে তিনি কোচের কাছে কারণ জানতে চেয়েছিলেন। বিরাটের কথায়, '২ ঘণ্টা ধরে আমি কোচকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম যে, কেন সুযোগ হয়নি। আমার মনে হয়েছিল কোনও কিছুই আমার সঙ্গ দিচ্ছে না। তবে যদি আবেগ ও দায়বদ্ধতা থাকে, তবে সেটাই প্রেরণা হয়ে ফিরে আসে আপনার কাছে।'

কোহলি দিল্লির রাজ্য দলে সুযোগ পান ২০০৬ সালে। ২ বছর পরেই শ্রীলঙ্কা সফরের ওয়ান ডে সিরিজের জন্য জাতীয় দলে ডাক পান বিরাট।

বন্ধ করুন