নিজস্ব ভঙ্গিতে নেটিজেনদের করোনা ভীতি দূর করার চেষ্টা করলেন সেহওয়াগ। ছবি-পিটিআই। (PTI)
নিজস্ব ভঙ্গিতে নেটিজেনদের করোনা ভীতি দূর করার চেষ্টা করলেন সেহওয়াগ। ছবি-পিটিআই। (PTI)

Covid-19: ভাইরাল ভিডিওয় সচেতনতার বার্তা বীরুর

  • সাধারণ মানুষকে করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতন করতে সেহওয়াগ অবলম্বন করলেন প্রতীকি পন্থা।

ক্রিকেটার জীবনে নিজের আগ্রাসী ব্যাটিং দিয়ে আলাদা পরিচিতি তৈরি করেছিলেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। খেলা ছাড়ার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় স্বতন্ত্র ছাপ রেখেছেন বীরু। বিশেষ করে টুইটারে অত্যন্ত সক্রিয় টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন ওপেনার। যে কোনও বিষয়ে নিজস্ব ভঙ্গিতে সময়োপযোগী টুইট করতে তাঁর জুড়ি নেই। বলা বাহুল্য, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সেহওয়াগের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে থাকে হাস্য রসের ছোঁয়া।

স্বাভাবিকভাবেই সেহওয়াগের বেশিরভাগ টুইট নেটিজেনদের মধ্যে অলোড়ন তৈরি করে এবং তা মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়। করোনা ভাইরাস নিয়ে সারা বিশ্ব জুড়ে যে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে, তার মাঝেও বীরু ধরে রাখলেন পরিচিত মেজাজ। সাধারণ মানুষকে করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতন করতে সেহওয়াগ অবলম্বন করলেন প্রতীকি পন্থা। বহু পুরনো একটি বলিউড গানকে পরিস্থিতি অনুযায়ী নিজের টুইটে ব্যবহার করলেন তিনি এবং বার্তা দিলেন দূর থেকে সৌজন্য বিনিময়ের।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে স্বাস্থ্য আধিকারিকরা সাধারণ মানুষকে নির্দেশ দিচ্ছেন ভিড় এড়িয়ে পরস্পরের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখার। ঠিক এই বিষয়টিই টুইটারে পোস্ট করা ৪০ সেকেন্ডের ভিডিও ক্লিপে প্রকাশ করেন সেহওয়াগ। ১৯৫২ সালে মুক্তি পাওয়া বলিউড মুভি 'সাকি'তে ব্যবহৃত লতা মঙ্গেশকরের 'দূর দূর সে' গানটি পোস্ট করেন বীরু। গানের কথাগুলি বাংলার তর্জমা করলে দাঁড়ায়, 'পাশে আসবেন না। হাত লাগাবেন না। সৌন্দর্য্য উপভোগ করুন দূর থেকে। ইশারা করুন দূর থেকে।' ক্যাপশনে সেহবাগ লেখেন, 'এটা এখন অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক, দূর সে।' হ্যাশট্যাগে বীরু লেখেন সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং।

বুধবার পোস্ট করা বীরুর টুইটটি লাইক করেছেন ১২ হাজারেরও বেশি মানুষ। রি-টুইট হয়েছে এগারোশোর বেশি। ভিডিওটি অবশ্য ১ লক্ষ ১৬ হাজারেরও বেশি বার দেখা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এর আগে সচিন তেন্ডুলকর, রোহিত শর্মা, পিভি সিন্ধুর মতো ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে সচেতনতার বার্তা দিয়েছেন। তবে এমন স্বতন্ত্র উপায়ে করোনা ভীতি দূর করার প্রচেষ্টা করতে দেখা যায়নি কাউকেই।


বন্ধ করুন