বাংলা নিউজ > ময়দান > IPL 22: দিল্লির বিরুদ্ধে ভালো ফিল্ডিং ব্র্যাভোর, 'বৃদ্ধ' বলে মজার ছলে কটাক্ষ ধোনির
দিল্লির বিরুদ্ধে ভালো ফিল্ডিং ব্র্যাভোর

IPL 22: দিল্লির বিরুদ্ধে ভালো ফিল্ডিং ব্র্যাভোর, 'বৃদ্ধ' বলে মজার ছলে কটাক্ষ ধোনির

  • বোলিং করছিলেন মহেশ থিকসানা। নরখিয়া কভার অঞ্চলে একটি শট মারেন। ব্র্যাভো ওখানেই দাঁড়িয়ে ছিলেন। ঝাঁপিয়ে পড়ে তিনি সিঙ্গেল বাঁচিয়ে দেন। ধোনি, ব্রাভোর এই প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়ে মজার ছলে কটাক্ষের সুরে বলেন 'ওয়েলডান ওল্ড ম্যান'।

শুভব্রত মুখার্জি: রবিবাসরীয় রাতে চলতি আইপিএলের ৫৫তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল চেন্নাই সুপার কিংস দল এবং দিল্লি ক্যাপিটালস। ম্যাচে দিল্লিকে রীতিমতো বিধ্বস্ত করে বড় জয় তুলে নেয় সিএসকে। সবকটি বিভাগেই দিল্লিকে অনায়াসে টেক্কা দেয় চেন্নাইয়ের ক্রিকেটাররা। ম্যাচে অত্যন্ত কিপ্টে বোলিংয়ের পাশাপাশি তিন তিনটি উইকেটও তুলে নেন সিএসকের ইংলিশ অলরাউন্ডার মইন আলি। ম্যাচে দিল্লির ব্যাটিংয়ের সময়ে একটি অসাধারণ ফিল্ডিং করেন ক্যারিবিয়ান তারকা অলরাউন্ডার ডোয়েন ব্র্যাভো। তার ফিল্ডিংয়ে খুশি হয়েছে তাকে মজার ছলে কটাক্ষ করতে দেখা যায় ধোনিকে। স্ট্যাম্প মাইকে ধরা পড়ে ব্র্যাভোকে উদ্দেশ্য করে ধোনি বলছেন 'ওয়েলডান ওল্ড ম্যান'।

ঘটনাটি ঘটে দিল্লির ব্যাটিংয়ের সময়। তখন ক্রিজে ছিলেন এনরিক নরখিয়া। বোলিং করছিলেন মহেশ থিকসানা। নরখিয়া কভার অঞ্চলে একটি শট মারেন। ব্র্যাভো ওখানেই দাঁড়িয়ে ছিলেন। ঝাঁপিয়ে পড়ে তিনি সিঙ্গেল বাঁচিয়ে দেন। ধোনি, ব্র্যাভোর এই প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়ে মজার ছলে কটাক্ষের সুরে বলেন 'ওয়েলডান ওল্ড ম্যান'। পরে বিষয়টি নিয়ে বলতে গিয়ে ৩৮ বছর বয়সি ব্র্যাভো জানান 'আমার কাছে ওই বলটা হ্যাটট্রিক বল ছিল। আমি নিশ্চিত করতে চেয়েছিলাম যাতে করে ওকে স্ট্রাইকে পাই। আমি ওকে বলেছিলাম দুইয়ের জন্য মরিয়া প্রয়াস না করে বাউন্ডারি মার।'

প্রসঙ্গত, এদিন প্রথমে ব্যাট করে ৬ উইকেট হারিয়ে ২০৬ রান করেছিল চেন্নাই। রুতুরাজ ৪১, ডেভন কনওয়ে ৮৭, শিবম দুবে ৩২ এবং একেবারে শেষদিকে ৮ বলে ২১ রান করে চেন্নাইকে বড় স্কোরে পৌঁছে দেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। রান তাড়া করতে নেমে ধারাবাহিকভাবে উইকেট হারিয়ে কার্যত কোনও লড়াই লড়তে পারেনি দিল্লি। তাদের হয়ে সর্বোচ্চ রান মিচেল মার্শের (২৫)। ১১ বলে ২১ রানের একটি ক্যামিও ইনিংস খেলেন ঋষভ পন্ত। সিএসকের হয়ে ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ১৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন মইন আলি। তার ঝুলিতে আসে মিচেল মার্শ, ঋষভ পন্ত এবং রিপল প্যাটেলের উইকেট।

বন্ধ করুন