বাড়ি > ময়দান > ইস্টবেঙ্গলের লোগো লাগানো মাস্ক ও স্যানিটাইজার উদ্বোধন করলেন ক্রীড়ামন্ত্রী
ইস্টবেঙ্গলের মাস্ক ও স্যানিটাইজার উদ্বোধন অনুষ্ঠান।
ইস্টবেঙ্গলের মাস্ক ও স্যানিটাইজার উদ্বোধন অনুষ্ঠান।

ইস্টবেঙ্গলের লোগো লাগানো মাস্ক ও স্যানিটাইজার উদ্বোধন করলেন ক্রীড়ামন্ত্রী

  • মাস্ক বিলি করা হবে সদস্য-সমর্থকদের মধ্যে। স্যানিটাইজার মিলবে ন্যায্য মূল্যে।

কখনও দলবদল নিয়ে চর্চায়, আবার কখনও ফুটবলারদের সঙ্গে চুক্তি ছিন্ন করা ও বেতন না দেওয়া নিয়ে বিতর্কে জেরবার ইস্টবেঙ্গল। এমন পরিস্থিতিতেও ক্লাবের সামাজিক দায়িত্ব পালনের দিকে নজর ছিল লাল-হলুদ শিবিরের। 

করোনা মহামারির সংকটময় সময়ে ক্লাবের তরফে ফেস মাস্ক বিলি ও ন্যায্য মূল্যে স্যানিটাইজার বিক্রির কথা আগেই জানানো হয়েছিল। বৃহস্পতিবার রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রীর হাত দিয়ে ইস্টবেঙ্গল উদ্বোধন করল ক্লাবের শতবার্ষিকী লোগো লাগানো ফেস মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

আপাতত দেড় লক্ষ ফেস মাস্ক বিলির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। ক্লাবের সদস্য-সমর্থদের মধ্যে তো বটেই, এই মাস্ক বিলি করা হবে পৌর ও ক্রীড়া সংস্থাগুলিতেও। পরবর্তী সময়ে সমর্থকরা ২৫ টাকার বিনিময়ে ফেস মাস্ক ও ৫০ টাকার বিনবিময়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিনতে পারবেন ক্লাব থেকে। স্যানিটাইজার প্রস্তুতকারক সংস্থাই ক্লাব টেন্ট থেকে বিক্রি করবে সেগুলি। মাস্ক ও স্যানিটাইজার পাওয়া যাবে অনলাইনেও।

ইস্টবেঙ্গলের তরফে স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে যে, এই মাস্ক ও স্যানিটাইজারে ক্লাবের লোগো ব্যবহার করা হলেও কোনও বাণিজ্যিক স্বার্থ নেই তাদের এই উদ্যোগের পিছনে। কেননা, এই স্যানিটাইজার যে দামে প্রস্তুতকারক সংস্থার কাছ থেকে কিনবে ইস্টবেঙ্গল, সমর্থকদের মধ্যে বিক্রি করা হবে সেই দামেই। করোনা মহামারির সংকটময় সময়ে সমর্থকদের সুরক্ষার দিকে নজর দিতেই তাদের এই প্রয়াস।

বলা বাহুল্য, মহামারির সময়ে সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে মাস্ক ও স্যানিটাইজার মানুষের দৈনন্দিন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গে পরিণত হয়েছে। অদূর ভবিষ্যতেও ছবিটা যে বদলাবে না, তা বুঝে নিতে অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। অবশ্য ইস্টবেঙ্গলের ফ্যানস ক্লাবগুলি ইতিমধ্যেই ক্লাবের লোগো লাগানো ফেস মাস্ক বিলি করছে জায়গায় জায়গায়। মাস্ক ও স্যানিটাইজার উদ্বোধনের পর ইস্টবেঙ্গলের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

বন্ধ করুন