বাংলা নিউজ > ময়দান > কে হবেন অস্ট্রেলিয়ার পরবর্তী ODI অধিনায়ক? বোলিং তারকার নাম ভাসিয়ে দিলেন পন্টিং
রিকি পন্টিং এর সঙ্গে স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার (ছবি-আইসিসি)

কে হবেন অস্ট্রেলিয়ার পরবর্তী ODI অধিনায়ক? বোলিং তারকার নাম ভাসিয়ে দিলেন পন্টিং

  • রিকি পন্টিং, যিনি তাঁর অধিনায়কত্বে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দু’বার বিশ্বকাপ জিতেছেন,তিনি এবার অ্যারন ফিঞ্চের পরবর্তী ওয়ানডে অধিনায়কের নাম বললেন। তিনি জানালেন ফিঞ্চের পরে কে অজি দলের পরবর্তী অধিনায়ক হবেন। নিজের পছন্দের সেই খেলোয়াড়ের নাম প্রকাশ করেছেন পন্টিং।

রিকি পন্টিং, যিনি তাঁর অধিনায়কত্বে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দু’বার বিশ্বকাপ জিতেছেন,তিনি এবার অ্যারন ফিঞ্চের পরবর্তী ওয়ানডে অধিনায়কের নাম বললেন। তিনি জানালেন ফিঞ্চের পরে কে অজি দলের পরবর্তী অধিনায়ক হবেন। নিজের পছন্দের সেই খেলোয়াড়ের নাম প্রকাশ করেছেন পন্টিং। সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের পর ওয়ানডে থেকে অবসরের ঘোষণা করেছেন অ্যারন ফিঞ্চ।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে (সিএ) এখন ওয়ানডে দলের জন্য ফিঞ্চের জায়গায় নতুন অধিনায়ক বেছে নিতে হবে। ভারতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পঞ্চাশ ওভারের বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হতে চলেছে এক বছরেরও কম সময় বাকি আছে। এমন অবস্থায় CAকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব একজন নতুন ওডিআই অধিনায়ক খুঁজে নিতে হবে। অস্ট্রেলিয়ার নতুন ওডিআই অধিনায়ক হওয়ার দৌড়ে ডেভিড ওয়ার্নারের নাম এগিয়ে রয়েছে। তবে পন্টিং অন্য একজন খেলোয়াড়ের নাম বললেন, যাঁকে তিনি নেতা হিসাবে পছন্দ করেন।

আরও পড়ুন… জানেন কী ভাবে নিজের জীবনের গতির সঙ্গে ১৯৮৩ বিশ্বকাপকে ধরে রেখেছেন কপিল দেব!

প্রাক্তন অধিনায়ক রিকি পন্টিং আইসিসি রিভিউ প্রোগ্রামে সঞ্জনা গণেশনের সঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘সত্যি বলতে, আমি মনে করি এটি প্যাট কামিন্স হবে। আমি জানি তিনি কোনও কারণে সব ওডিআই খেলেন না,কারণ টেস্ট ক্রিকেটে তাঁর কাজের চাপ রয়েছে।সব ফাস্ট বোলারের মতো, বছরের পর বছর ধরে অনেক বেশি চাপ থাকে তাঁর।আমি জানি তারা কামিন্স, (জোশ) হ্যাজলউড এবং (মিচেল) স্টার্ককে ১০০ শতাংশ ফিট রাখে। এবং বড় টেস্ট বা সিরিজের জন্য সুস্থ রাখার চেষ্টা করেন এবং অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড এই বিষয়ে খুব সচেতন। কিন্তু দেখুন,প্যাট কামিন্স অস্ট্রেলিয়ারODI দলের অধিনায়ক না হলে আমি অবাক হব।’

২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় বল-টেম্পারিং কেলেঙ্কারির পরে,প্রাক্তন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল এবং অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্ব থেকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। ওয়ার্নারকে আরও কঠোর শাস্তি দেওয়া হয়েছিল এবং তার অধিনায়কত্বের উপর আজীবন নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল।

আরও পড়ুন… খেলার মাঝেই উইকেটরক্ষকের গ্লাভস হাতে গলিয়ে বল ধরলেন ফিল্ডার! এই অপরাধের শাস্তি কি জানেন?

যাইহোক,পন্টিং ওয়ার্নারের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করার জন্য যথেষ্ট কারণ হিসাবে টেস্ট সহ-অধিনায়ক হিসাবে স্মিথের বর্তমান ভূমিকা উল্লেখ করেছেন। পন্টিং বলেছেন,‘স্টিভ স্মিথের সঙ্গে যা ঘটেছিল তার উপর ভিত্তি করে আমি বলেছিলাম - তিনি এখন আবার টেস্ট সহ-অধিনায়ক,সত্যিই কেপটাউনে পুরো বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন।’

বন্ধ করুন