বাংলা নিউজ > ময়দান > WI vs AUS: রাসেলের ইগোর খেসারত দিল উইন্ডিজ, দুরন্ত স্টার্ক ও মার্শের সুবাদে সিরিজে প্রথম জয় অস্ট্রেলিয়ার
অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। ছবি- টুইটার (@cricketcomau)।
অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। ছবি- টুইটার (@cricketcomau)।

WI vs AUS: রাসেলের ইগোর খেসারত দিল উইন্ডিজ, দুরন্ত স্টার্ক ও মার্শের সুবাদে সিরিজে প্রথম জয় অস্ট্রেলিয়ার

  • শেষ ওভারে মাত্র ১১ রান বাকি থাকলেও অহেতুক ছয় মারতে গিয়ে চার বল নষ্ট করেন রাসেল।

মাত্র কয়েকটা দিনই ক্রিকেটের দুনিয়ায় সবকিছু বদলে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে গোটা সিরিজেই নিজের খারাপ বোলিংয়ের জন্য সমালোচিত হয়েছেন মিচেল স্টার্ক। তবে চতুর্থ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে দুরন্তভাবে শেষ ওভারে ১১ রান ডিফেন্ড করে জাত চেনালেন তিনি। চার রানে সিরিজের প্রথম জয় পেল অস্ট্রেলিয়া।

টানা চার নম্বর টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। সিরিজে আগেই পরাস্ত হলেও সম্মানের জন্য খেলছে অজি দল। এদিন আহত সিংহের মতো ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ল অস্ট্রেলিয়া। ম্যাথু ওয়েড (৪ বলে ৫) দ্রুত সাজঘরে ফিরে গেলেও ফিঞ্চ (৩৭ বলে ৫৩) এবং মিচেল মার্শের দুরন্ত ১১৪ রানের পার্টনারশিপের ওপর ভর করেই ছয় উইকেটে ১৮৯ রান তোলে অজিরা। বল হাতে তিন উইকেট নেন হেডেন ওয়ালশ জুনিয়র।

জবাবে দুরন্ত আগ্রাসী ভঙ্গিমায় নিজেদের ইনিংস শুরু করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এভিন লুইস (৩১ বলে ১৪) আউট হওয়ার আগেই পাঁচ ওভারের মধ্যে ৬২ রান তুলে নেয় উইন্ডিজ। লুইস আউট হলেও নিজের দুরন্ত ফর্ম বজায় রেখে খেলা চালিয়ে যান লেন্ডল সিমন্স। অবশেষে ব্যক্তিগত ৭২ রানে (৪৮ বলে) তাঁকে সাজঘরে ফেরেন তিনি। একই ওভারে সিমন্স ও অধিনায়ক নিকোলাস পুরানের উইকেট নেন মার্শ (১৫ বলে ১৬)।

ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন ক্রিস গেইল (৩ বলে ১)। তবে অধিনায়ক নিকোলাস পুরান আউট হলে ফ্যাবিয়ান অ্যালেন (১৪ বলে ২৯) ও আন্দ্রে রাসেল (১৩ বলে ২৪) দলকে জয়ের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন। তবে শেষ ওভারে মাত্র ১১ রান বাকি থাকলেও রাসেলের ইগোর মাশুল গুনতে হয় তাঁর দলকে।পর পর ছক্কা হাঁকানোর উদ্দেশ্যে মিচেল স্টার্কের প্রথম চার বল নষ্ট তো করেনই, উপরন্তু রান নিতেও অস্বীকার করেন কলকাতা নাইট রাইডার্স তারকা। 

ইনিংসের শেষ বলে চার মারলেও তা ছিল নিছকই সান্ত্বনা। ব্যাটিংয়ে কেরিয়ার সেরা ইনিংস খেলার পর বল হাতেও কেরিয়ারের সেরা পারফরম্যান্স করেন মার্শ। নির্ধারিত চার ওভারে মাত্র ২৪ রান খরচ করে তুলে নেন তিনটি উইকেট। ম্যাচের সেরাও তিন। শেষ ওভারে দুরন্ত বল করলেও চার ওভারে কোন উইকেট না নিয়েই ৩৭ রান দেন স্টার্ক।

বন্ধ করুন