বাংলা নিউজ > ময়দান > শাহিনের দৌলতে বাড়ল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ জয়ের অপেক্ষা, বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে উইন্ডিজদের হারালেন বাবর আজমরা
ম্যাচ শেষে জয়ের কারিগর শাহিন আফ্রিদির সঙ্গে পাকিস্তান দলের সতীর্থরা। ছবি- টুইটার (@ICC)।
ম্যাচ শেষে জয়ের কারিগর শাহিন আফ্রিদির সঙ্গে পাকিস্তান দলের সতীর্থরা। ছবি- টুইটার (@ICC)।

শাহিনের দৌলতে বাড়ল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ জয়ের অপেক্ষা, বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে উইন্ডিজদের হারালেন বাবর আজমরা

  • ম্যাচে মোট ১০ উইকেট নেন শাহিন আফ্রিদি।

প্রথম টেস্টে ঐতিহাসিক জয়ের পর প্রায় দু'দশক বাদে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ জয়ের স্বপ্ন দেখছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে সে গুড়ে বালি। দুরন্ত শাহিন আফ্রিদির সুবাদে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট ম্যাচ জিতে জেসন হোল্ডারদের বিরুদ্ধে সিরিজ ড্র করল পাকিস্তান দল।

বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে পাকিস্তানের জয়ের সম্ভাবনা কমে আসলেও আগুনে বোলিংয়ে ভর করেই ১০৯ রানে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ জিতলেন বাবর আজমরা। পঞ্চম দিনের শুরুতে দুই দলের কাছেই ম্যাচ জেতার সুযোগ ছিল। উইন্ডিজদের জয়ের জন্য বাকি ছিল ২৮০ রান ও পাক দলকে নিতে হত নয়টি উইকেট। দিনের শুরুটাও বেশ ভালই করেছিলেন অধিনায়ক ক্রেগ ব্রাথওয়েট (৩৯) ও নাইট ওয়াচ ম্যান আলজারি জোসেফ (১৭)।

তবে শাহিন, জোসেফকে সাজঘরে ফেরাতেই ম্যাচের দখল নিতে শুরু করে পাকিস্তান। বোনার (২) ও রস্টন চেজ (০)-কে দ্রুত আউট করেন হাসান আলি। জার্মেন ব্ল্যাকউড (২৫), কায়েল মেয়ার্স (৩২) ও হোল্ডার (৪৭), প্রত্যেকেই ক্রিজে বেশ কিছুটা সময় কাটিয়ে সেট হয়ে গিয়েও সুযোগকে কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন। পেসাররা ক্লান্ত হয়ে গেলেও নওমান আলি নিজের স্পিন জালে উইন্ডিজ ব্যাটসম্যানদের বরাবর চাপে রাখতে সক্ষম হন। হোল্ডারের গুরুত্বপূর্ণ উইকেটসহ দ্বিতীয় ইনিংসে মোট তিনটি উইকেট নেন তিনি।

বাকি কাজটা শাহিন করে দেন। প্রথম ইনিংসে ছয় উইকেট নেওয়ার পরে দ্বিতীয় ইনিংসে চার উইকেট নেন তিনি। ম্যাচে তাঁর মোট ৯৪ রান খরচ করে ১০ উইকেট নেন বাঁ-হাতি এই ফাস্ট বোলার, যা তাঁর কেরিয়ারের সেরা বোলিং পারফরম্যান্স। দুরন্ত বোলিংয়ের জন্য ম্যান অফ দ্য ম্যাচ ও সিরিজ, দু'টোই জিতে নেন পাক ফাস্ট বোলার। ২০০৫, ২০১১ সালের পর ২০২১-এও ঘরের মাঠে পাক দলের বিরুদ্ধে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে প্রথম টেস্ট জিতেও সিরিজ জিততে ফের ব্যর্থ হল উইন্ডিজ।  

বন্ধ করুন