বাংলা নিউজ > ময়দান > WTC ফাইনালে ভারতের বোলিং আক্রমণকে সমীহ করছেন উইলিয়ামসন
বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে খেলার জন্য মুখিয়ে কেন উইলিয়ামসন।
বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে খেলার জন্য মুখিয়ে কেন উইলিয়ামসন।

WTC ফাইনালে ভারতের বোলিং আক্রমণকে সমীহ করছেন উইলিয়ামসন

  • বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল ঘিরে উত্তেজনা বাড়ছে। ভারত আর নিউজিল্যান্ড, দুই শক্তিশালী প্রতিপক্ষের লড়াই দেখার অপেক্ষায় ক্রিকেট প্রেমীরা। 

হাতে রয়েছে মাত্র আর কয়েক দিন। তার পরেই 1১৮ জুন থেকে শুরু হয়ে যাবে বহু প্রতীক্ষিত বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। আর সেই ফাইনালে নামার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। বিশেষত ভারতের বিরুদ্ধে খেলার জন্য উত্তজেনার ফুটছেন কেন।

ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে কেন উইলিয়ামসনের বন্ধুত্বের কথা সকলেরই জানা। উইলিয়ামসন সেই প্রসঙ্গে বলেওছেন, ‘অনেক বছর ধরেই তো আমরা একে অপরের বিরুদ্ধে খেলছি। তাই দু'জন দু'জনকে ভাল করে চিনি। বিরাটের বিরুদ্ধে নামার জন্য মুখিয়ে রয়েছি।’

আর বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে বন্ধুর দলের বোলিং আক্রমণকে রীতিমতো সমীহ করছেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক। আইসিসি-র নেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি পরিষ্কার বলে দিয়েছেন, ‘অসম্ভব ভাল আক্রমণাত্মক বোলার রয়েছে ভারতের। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজ খেলার সময়ে ওদের বোলিংয়ের গভীরতা দেখেছি। জোরে বোলার হোক অথবা স্পিন বোলার, দু’জায়গাতেই সমান ভাবে ওরা সেরা। সে কারণেই সম্ভবত র‌্যাঙ্কিংয়ে সকলের আগে রয়েছে। আর এই বোলিং শক্তির বিরুদ্ধে নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দিতে হবে।’  

এর সঙ্গেই নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক বলেছেন, ‘এই ফাইনাল খেলার জন্য কিন্তু অনেকগুলো দেশ লড়াই করেছে। শেষ পর্যন্ত ফাইনালে যে দু'টো দল উঠেছে, তার মধ্যে আমরা একটা। আর ফাইনালে বিশ্বের এক নম্বর দলের মুখোমুখি হতে চলেছি আমরা। ওদের শক্তি সম্পর্কে আমরা ওয়াকিবহল। আর নিরপেক্ষ ভেন্যুতে এই ফাইনালটা যে বেশ উত্তেজনার হবে, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।’

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলার জন্য রীতিমতো মুখিয়ে রয়েছেন উইলিয়ামসন। তিনি বলেছেন, ‘বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলার স্বপ্ন অনেকদিন ধরেই ছিল। আর সেই সুযোগ পাওয়া কতটা বড় বিষয়, সেটা আমি এবং আমার সতীর্থরা ভাল করেই জানি। আর এই ফাইনালের আগে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দু'টি টেস্ট ম্যাচও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমার তো মনে হচ্ছে, এখানে তিনটি টেস্টের একটা মিনি সিরিজ খেলতে এসেছি। যে সিরিজের শেষ ম্যাচটা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

বন্ধ করুন