বাংলা নিউজ > ময়দান > Wimbledon 2022: কির্গিয়স উত্যক্ত করে, অভিযোগ সিসিপাসের, ও খুব নরম, কটাক্ষ অজির
নিক কির্গিয়স-স্টেফানোস সিসিপাসের ম্যাচ ঘিরে ধুন্ধুমার কাণ্ড। ছবি- এএফপি।  (AFP)

Wimbledon 2022: কির্গিয়স উত্যক্ত করে, অভিযোগ সিসিপাসের, ও খুব নরম, কটাক্ষ অজির

  • ম্যাচে বারংবার সিসিপাসের বিরুদ্ধে আম্পায়ারের কাছে অভিযোগ করেন কির্গিয়স।

নিক কির্গিয়সের ম্যাচ মানেই চোখ ধাঁধানো কিছু শট এবং বিতর্ক। তৃতীয় রাউন্ডে বিশ্বের পাঁচ নম্বর তারকা স্টেফানোস সিসিপাসের বিরুদ্ধে ম্যাচেও একই ছবি ধরা পড়ল। তিন ঘণ্টা ১৭ মিনিটের ম্যাচে অসাধারণ টেনিসের সাক্ষী থাকল উইম্বলডনের কোর্ট নম্বর ১। ৬-৭ (২), ৬-৪, ৬-৩, ৭-৬ (৭) কির্গিয়স ম্যাচ জিতলেও, অজি তারকার বিরুদ্ধে খচে লাল সিসিপাস।

গোটা বিষয়ের সূত্রপাত প্রথম সেট জয়ের পর সিসিপাস রেগে গিয়ে একটি বল স্ট্যান্ডে মারায়। ২০২০ সালে নোভাক জকোভিচ বল দিয়ে এক লাইন রেফারিকে আঘাত করার পর তাঁকে টুর্নামেন্ট থেকে বহিষ্কৃত করা হয়। যদিও সিসিপাসের মারা বল স্ট্যান্ডে কারুর গায়ে লাগেনি, তাও আম্পায়ারকে বারংবার সিসিপাসের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানানোর পাশাপাশি টুর্নামেন্ট রেফারিকেও সামনে আনার দাবি জানান কির্গিয়স। সিসিপাস ক্ষুব্ধ হয়ে আবারও এক ঘটনা ঘটানোয় তাঁকে এক পয়েন্ট পেনাল্টিও দেওয়া হয়। তবে এর থেকে বেশি কোনও শাস্তি পাননি তিনি। 

আরও পড়ুন:- Wimbledon 2022: চতুর্থ রাউন্ডে উঠলেন রাফায়েল নাদাল, সিসিপাসকে হারালেন কির্গিয়স

ম্যাচ শেষে ক্ষুব্ধ গ্রিক তারকা কির্গিয়সের বিরুদ্ধে তাঁকে উত্যক্ত করার অভিযোগ এনে বলেন, ‘ও নিরন্তর প্রতিপক্ষকে উত্যক্ত করে। এটাই সত্যি। স্কুলেও হয়তো এমনটাই করত ও। আমার সার্ভের আগে বারবার কথা বলা, অভিযোগ করায় অনেকটা সময় নষ্ট হচ্ছে।আমরা তো এখানে কথা বলতে অভিযোগ জানাতে আসিনি, এসেছি টেনিস খেলতে। এসবের জেরে সেটাই ব্যাহত হচ্ছে। প্রতিটা পয়েন্টে আজকে মনে হচ্ছিল নেটের অপরপক্ষে আলাদাই কিছু হচ্ছে।’ ক্ষুব্ধ সিসিপাস আরও দাবি করেন যে সকল খেলোয়াড়রা এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ জানিয়ে নতুন কিছু যেন নিয়ম তৈরি করতে বাধ্য করেন।

আরও পড়ুন:- Wimbledon 2022: ও আমার একাগ্রতা ভঙ্গ করেছে, ম্যাচ জিতেও সোনেগোর অভিযোগে বিদ্ধ নাদাল

কির্গিয়সও থেমে থাকার পাত্র নন। তিনি জবাবে বলেন, ‘আমি জানি আমি কী করে ওকে উত্যক্ত করেছি। ও ইচ্ছা করে আমার গায়ের দিকে বল মারছিল, ও সমর্থকের দিকে বল মারে, ও স্টেডিয়ামের বাইরে বল মারে। আমি তো আম্পায়ারকে অভিযোগ জানানো ছাড়া আর কিছুই করেনি, যা স্টোফানোসকে অপমানিত করে। ও এখানে এসে আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাচ্ছে, এটা খালি নমনীয়তার পরিচয়। ও স্রেফ খুব নরম। এটুকুতেই যদি ওর অসুবিধা হয়, তাহলে তো যে কেউ ওর বিরুদ্ধে এমনটা করে ওকে নিজের পরিকল্পনা থেকে সরিয়ে আনতে সফল হবে।’ অজি তারকার আরও দাবি, তিনি সিসিপাসের জায়গায় থাকলে একই কর্মকাণ্ডে তাঁকে বহিষ্কৃত করা হত। সব মিলিয়ে এই ম্যাচটা একেবারে যে ‘বক্সঅফিস’ ছিল, তা বলাই বাহুল্য।

বন্ধ করুন