বাংলা নিউজ > ময়দান > ATP-এর কড়া শাস্তির পরেও নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল, জানিয়ে দিল উইম্বলডন কর্তৃপক্ষ
উইম্বলডন কর্তৃপক্ষ নিজেদের সিদ্ধান্তে অনড় থাকল।

ATP-এর কড়া শাস্তির পরেও নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল, জানিয়ে দিল উইম্বলডন কর্তৃপক্ষ

  • ইউক্রেনের উপর রুশ আক্রমণে পর রাশিয়া এবং বেলারুসের টেনিস প্লেয়ারদের জন্য নো এন্টি বোর্ড ঝুলিয়ে দেয় উইম্বলডন। রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রতিবাদেই পুতিনের দেশের টেনিস প্লেয়ারদের উইম্বলডনে খেলতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আর এই বিষয়টি ভালো ভাবে নেননি এটিপি।

উইম্বলডনে খেলে আর র‌্যাঙ্কিং পয়েন্ট পাবেন না টেনিস প্লেয়াররা। আসলে এটিপি-র শাস্তির কবলে পড়ে নিজেদের ঐতিহ্য হারাল উইম্বলডন। ইউক্রেনের উপর রুশ আক্রমণের পর রাশিয়া এবং বেলারুসের টেনিস প্লেয়ারদের জন্য নো এন্টি বোর্ড ঝুলিয়ে দেয় উইম্বলডন। রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রতিবাদেই পুতিনের দেশের টেনিস প্লেয়ারদের উইম্বলডনে খেলতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আর এই বিষয়টি ভালো ভাবে নেননি এটিপি। এরই শাস্তি হিসেবে ঐতিহ্যবাহী টুর্নামেন্টের কোনও গুরুত্বই আর খাতায়-কলমে থাকল না। এই প্রতিযোগিতা খেলে কোনও র‌্যাঙ্কিং পয়েন্ট পাবেন না নোভক জোকোভিচ, রাফায়েল নাদালরা। এর ফলে যেটা হবে, তা হল প্লেয়ারদের ক্রমতালিকাতেও কিন্তু এর প্রভাব পড়বে।

এই ঘটনার পর উইম্বলডন কর্তৃপক্ষ একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। যেখানে তারা পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, তারা সিদ্ধান্তেই বহাল থাকবে। তারা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, তা যুক্তিসঙ্গত। তাদের বক্তব্য, ‘রাশিয়ার বৈশ্বিক প্রভাব সীমিত করার জন্য যুক্তরাজ্য সরকার যে অবস্থান নিয়েছে, যার ফলে র‌্যাঙ্কিং দ্বারা টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহণ আটকে দেওয়া হয়। এবং সরকার, শিল্প, খেলাধুলা এবং সৃজনশীল প্রতিষ্ঠানগুলি এর জন্য বাহবা জানিয়েছিল। আমরা এই দৃষ্টিকোণ থেকে বিষয়টি দেখছি, একমাত্র আমরাই কার্যকর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। উইম্বলডন একটি বিশ্বব্যাপী ঐতিহ্যবাহী ক্রীড়া ইভেন্ট এবং ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান। আর আমরা যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, তাতে আমরা অটল আছি।’ যেমনটি আমরা পূর্বে বলেছি, বিভিন্ন কারণের বিরুদ্ধে সতর্কতার সাথে বিবেচনা করার পরে, এবং যুক্তরাজ্য সরকারের নির্দেশিক দিকনির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করতে বাধ্য, আমরা দুটি দৃঢ় সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি যা এই সিদ্ধান্তের ভিত্তি তৈরি করেছে।’

আরও পড়ুন: উইম্বলডন এখন এলেবেলে, টুর্নামেন্টে জিতলেও র‌্যাঙ্কিং পয়েন্ট পাবেন না নাদালরা

তারা আরও যোগ করেছেন, ‘যেমনটি আমরা পূর্বে বলেছি, বিভিন্ন কারণের বিরুদ্ধে সতর্কতার সাথে বিবেচনা করার পরে এবং যুক্তরাজ্য সরকারের নির্দেশিকা অনুযায়ী কাজ করতে বাধ্য আমরা। যে কারণে দু'টি দৃঢ় সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি, যা এই সিদ্ধান্তের ভিত্তি তৈরি করেছে। খেলোয়াড় বা তাদের পরিবারের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে, এমন কোনও পদক্ষেপ নিতে আমরা প্রস্তুত ছিলাম না। আমরা বিশ্বাস করি যে, পৃথক খেলোয়াড়দের কাছ থেকে লিখিত ঘোষণার প্রয়োজন - এবং এটি সমস্ত প্রাসঙ্গিক খেলোয়াড়দের জন্য প্রযোজ্য হবে।’

এটিপি-র বক্তব্য ছিল আবার, ‘যে কোনও দেশের প্লেয়ার তাঁর যোগ্যতার ভিত্তিতে টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবে, আমাদের প্রতিযোগিতার এটাই মূল উদ্দেশ্য। উইম্বল্ডন যে রাশিয়া এবং বেলারুসের খেলোয়াড়দের খেলতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেটা এটিপি-র ক্রমতালিকার নিয়মবিরুদ্ধ। তাই এই পরিবর্তিত পরিস্থিতির জন্য খুব দুঃখের সঙ্গে আমরা উইম্বলডন ২০২২ থেকে পয়েন্ট সরিয়ে নিচ্ছি। আমাদের সব নিয়ম প্লেয়ারদের অগ্রাধিকার দিয়ে ভাবা হয়। ৩০টি দেশে যে ট্যুর হয়, সেখানে একটি দেশের ট্যুরে আলাদা নিয়ম মানা যায় না।’

এই এপ্রিল মাসেই উইম্বলডন কর্তৃপক্ষের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, রাশিয়া এবং বেলারুসের টেনিস প্লেয়ারদের উইম্বলডনে অংশ গ্রহণ করতে না দেওয়ার। সেই সময়ে রাফায়েল নাদাল, নোভক জোকোভিচের মতো টেনিস খেলোয়াড়রা উইম্বলডনের এই সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনাও করেছিলেন। যার বড় খেসারত শেষ পর্যন্ত দিতে হল উইম্বলডনকে।

বন্ধ করুন