বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘দুটি হার দেখেছি - ক্রিকেট দল ও পুরো বাংলাদেশের’- পরীগঞ্জের হিংসায় বললেন মাশরাফি
বাংলাদেশের পীরগঞ্জে বাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনার নিন্দা করলেন মাশরাফি বিন মোর্তাজা। (ছবি সৌজন্য, ফেসবুক Mashrafe Bin Mortaza)

‘দুটি হার দেখেছি - ক্রিকেট দল ও পুরো বাংলাদেশের’- পরীগঞ্জের হিংসায় বললেন মাশরাফি

  • বাংলাদেশের পীরগঞ্জে বাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনার নিন্দা করলেন মাশরাফি বিন মোর্তাজা।

বাংলাদেশের পীরগঞ্জে বাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনার নিন্দা করলেন মাশরাফি বিন মোর্তাজা। বললেন, সোমবার রাতে দুটি হারের সাক্ষী থেকেছে। একটিতে হেরেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। অপরটিতে হেরে গিয়েছে পুরো বাংলাদেশ।

সোমবার ফেসবুকে পীরগঞ্জে বাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়ার ছবি পোস্ট করে বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক বলেন, ‘কাল দুইটা (দুটি) হার দেখেছি। একটা বাংলাদেশ ক্রিকেট দল, যেটায় কষ্ট পেয়েছি। আর একটি পুরো বাংলাদেশের, যা হৃদয় ভেঙে চুরমার করেছে। এই লাল-সবুজ তো আমরা চাইনি। কত-কত স্বপ্ন,কত কষ্টার্জিত জীবন যুদ্ধ এক নিমিষেই শেষ। আল্লাহ আপনি আমাদের হেদায়েত দিন।’

বাংলাদেশি সংবাদমাধ্যম প্রথম আলোর প্রতিবেদন অনুযায়ী, ফেসবুকে এক সংখ্যালঘু ইসলাম ধর্মের অবমাননা করে পোস্ট করছে বলে রটে যায়। সেই রটনার প্রেক্ষিতে রবিবার রাত ১০ টা নাগাদ পীরগঞ্জের রামনাথপুর ইউনিয়নের মাঝিপাড়া এলাকায়বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী এলাকার সংখ্যালঘুদের বাড়িতে হামলা চালায়। আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় ২০টি বাড়িতে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

উল্লেখ্য, এমনিতে দুর্গাপুজোর মধ্যে বাংলাদেশের একাধিক মণ্ডপে তাণ্ডব চালানো হয়েছে। বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, একটি পুজো মণ্ডপে কোরান শরিফের অসম্মান করা হয়েছে বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু পোস্ট ছড়িয়ে পড়ে। এরপর মণ্ডপে ভাঙচুর শুরু হয়। চাঁদপুরের হাজিগঞ্জ, চট্টগ্রামের বাঁশখালি, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ এবং কক্সবাজারের পেকুয়ায় বিভিন্ন মন্দিরে হামলা চালানো হয়। বেশ কিছু ছবিও প্রকাশ্যে আসে যাতে দেখা যায় দুর্গা প্রতিমা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। নোয়াখালিতে ইসকনের মন্দিরে তাণ্ডব চালানো হয়। প্রাণহানিরও সাক্ষী থাকে নোয়াখালি। তারইমধ্যে গত কয়েকদিন ধরে ফেনী এবং নোয়াখালিতে যে হিংসা ছড়িয়েছে, তার জেরে নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হয়েছে।

বন্ধ করুন