বাংলা নিউজ > ময়দান > দেশের হয়ে খেলছ, বাড়ির দল নয়, গায়ে হাওয়া লাগানো পাক ক্রিকেটারদের কড়া হুঁশিয়ারি মিয়াঁদাদের

দেশের হয়ে খেলছ, বাড়ির দল নয়, গায়ে হাওয়া লাগানো পাক ক্রিকেটারদের কড়া হুঁশিয়ারি মিয়াঁদাদের

বাবর আজম ও জাভেদ মিয়াঁদাদ। ছবি- এপি/ফাইল

২-৩টি ইনিংসে কেউ ব্যর্থ হলেই বাদ দেওয়ার নিদান পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়কের।

দুই ওপেনার বাবর আজম ও মহম্মদ রিজওয়ান সফল হলে পাকিস্তান ক্রিকেট দল দৌড়য়। বাবর-রিজওয়ান ব্যর্থ হলেই তারা মুখ থুবড়ে পড়। দু-একটি ম্যাচে নয়, বরং বেশ কিছুদিন ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তানের এমন ছবিই দেখে আসছে ক্রিকেট বিশ্ব। বিষয়টি নিয়ে নিতান্ত বিরক্ত প্রাক্তন পাক অধিনায়ক জাভেদ মিয়াঁদাদ। তিনি চাঁচাছোলা ভাষায় সমালোচনা করেন পাকিস্তানের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের।

Sports Paktv-র ভিডিয়োয় মিয়াঁদাদ স্পষ্ট দাবি করেন যে, ২-৩টি ইনিংসে কেউ পরপর ব্যর্থ হলে তাঁকে জাতীয় দল থেকে বাদ দেওয়া উচিত। কেননা এত জনসংখ্যার দেশে অনেকে অপেক্ষা করছেন সুযোগের জন্য। পাকিস্তানের হয়ে খেলার জন্য প্রতিযোগিতা নিতান্ত কম নয়।

জাভেদের কথায়, ‘যদি কোনও প্লেয়ারকে আমি ২-৩টি ইনিংসে সুযোগ দিই এবং সে পারফর্ম করতে না পারে, তবে আমি তাঁকে বদলে দেব। কেননা আপনি পাকিস্তানের জন্য খেলছেন। এটা আমার বাড়ির দল নয়। এত বড় জনসংখ্যার দেশ। এদের মধ্যে যে কেউ জায়গা নিতে পারে। প্রতিযোগিতা অনেক।’

ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম টি-২০ ম্যাচের লাইভ আপডেটে চোখ রাখতে ক্লিক করুন

শেষে মিয়াঁদাদ পাকিস্তানের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের সতর্ক করে বলেন, ‘এই সব খেলোয়াড়দের বোঝা উচিত যে, ওদের সব ম্যাচে ভালো খেলতে হবে। যদি তোমরা ভালো খেলতে না পারো, তবে তোমার দল উন্নতি করতে পারবে না।’

উল্লখ্য, মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতাতেই এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠেও খালি হাতে ফিরতে হয়েছে পাকিস্তানকে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে চলতি সাত ম্যাচের টি-২০ সিরিজেও পাক শিবিরকে আশঙ্কায় রেখেছে মিডল অর্ডার ব্যাটিং। দু'বার পিছিয়ে পড়েও পাকিস্তান শেষমেশ ২-২ সমতা ফিরিয়েছে সিরিজে। পাকিস্তানকে একটি ম্যাচে অবিচ্ছদ্য থেকে জয় এনে দেন দুই ওপেনার বাবর-রিজওয়ান। পাকিস্তান অপর যে ম্যাচটি জেতে, তাতেও দুই ওপেনারের অবদান সিংহভাগ।

আরও পড়ুন:- '২৪ ঘণ্টা দিনের আলোর ব্যবস্থা করতে পারি', ECB-কে ব্যঙ্গ করে ভারত-পাক সিরিজ আয়োজনের দাবি জানাল আইসল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড

এই অবস্থায় আসন্ন আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ভালো কিছু করে দেখানোর বিষয়ে খুব একটা আশাবাদী হওয়ার উপায় নেই ওদেশের প্রাক্তনীদেরই। বেশিরভাগেরই ধারণা, মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানরা দায়িত্ব ভাগ করে নিতে না পারলে পাকিস্তানের পক্ষে খুব বেশিদূর এগনো সম্ভব হবে না।

বন্ধ করুন