বাড়ি > ময়দান > বিশ্বকাপে ধোনির ভারতের গোল্ডেন হ্যাটট্রিক দেখতে চেয়েছিলেন বলবীর
বলবীর সিং (সিনিয়র)
বলবীর সিং (সিনিয়র)

বিশ্বকাপে ধোনির ভারতের গোল্ডেন হ্যাটট্রিক দেখতে চেয়েছিলেন বলবীর

  • ‘তোমাদের জয় আমাকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।’ ভারত অধিনায়ককে জানিয়েছিলেন প্রয়াত হকি কিংবদন্তি।

ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা হকি তারকা হলেও কিংবদন্তি বলবীর সিংয়ের অন্যান্য খেলার প্রতি আগ্রহ নিছক কম ছিল না।‌ পঞ্জাবের স্পোর্টস ডিরেক্টর হিসেবে দীর্ঘদিন কাজ করার সুবাদে সব খেলাধুলোর প্রতিই তাঁর ভালোবাসা থাকাটা স্বাভাবিক। তবে তিনি যে ক্রিকেটের একনিষ্ঠ অনুরাগী ছিলেন, তা সামনে আসে ২০১৬ টি-২০ বিশ্বকাপের সময়।

৪ বছর আগে মোহালিতে ভারত-অস্ট্রেলিয়া টি-২০ বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে বলবীর সিং স্টেডিয়ামে হাজির হয়েছিলেন টিম ইন্ডিয়াকে শুভকামনা জানাতে। তখন তাঁর বয়স ছিল ৯২ বছর। তিনি ভারতীয় দলের সঙ্গে দেখা করেন এবং আশা প্রকাশ করেন মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে টিম ইন্ডিয়া তিন নম্বর বিশ্বকাপ জিতে তাদের গোল্ডেন হ্যাটট্রিক পূর্ণ করবে।

ভারত অধিনায়ক ধোনি বলবীর সিংকে পালটা কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তাঁর স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নেন। প্রত্যুত্তরে বলবীর সিং বলেন, ‘তোমাদের জয় আমাকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।’

উল্লেখ্য, ধোনির নেতৃত্বে টিম ইন্ডিয়া ২০০৭ সালে টি-২০ ও ২০১১ সালে ওয়ান ডে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়। সেকারণেই ২০১৬ সালে টি-২০ বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হলে ধোনির নেতৃত্বে ভারতের বিশ্বকাপ জয়ের হ্যাটট্রিক হতো। যদিও সেটা সম্ভব হয়নি।

গত সোমবার চণ্ডীগড়ের ফর্টিস হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনবারের অলিম্পিক সোনাজয়ী হকি তারকা। ১৯৪৮, ১৯৫২ ও ১৯৫৬ অলিম্পিকের ফিল্ড হকিতে সোনাজয়ী ভারতীয় দলের সদস্য ছিলেন বলবীর সিং। ১৯৫৬ অলিম্পিকে ভারতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন তিনি। 

বলবীর সিংই প্রথম হকি তারকা, যাঁকে ১৯৫৭ সালে পদ্মশ্রী পুরষ্কারে ভূষিত করে ভারত সরকার। ১৮৭৫ সালে বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় হকি দলের ম্যানেজার ছিলেন তিনি। ১৯৭৭ সালে প্রকাশিত হয় বলবীর সিংয়ের আত্মজীবনী 'দ্য গোল্ডেন হ্যাটট্রিক: মাই হকি ডেজ'। অলিম্পিক হকির ফাইনালে সবথেকে বেশি গোল করার বিশ্বরেকর্ড এখনও বলবীরের দখলেই রয়েছে।

বন্ধ করুন