বিশ্বকাপের মঞ্চে ধোনি ও যুবরাজ। ছবি- এএফপি।
বিশ্বকাপের মঞ্চে ধোনি ও যুবরাজ। ছবি- এএফপি।

তাঁরাও বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য, মজার ছলে শাস্ত্রীকে মনে করালেন যুবরাজ

  • ৮৩-র বিশ্বজয়ী দলের সদস্য রবি শাস্ত্রীকে বিব্রত করার সুযোগ হাতছাড়া করেননি যুবি।

ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ভারতের বিশ্বজয়ের মুহূর্তে ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায় ছিলেন টিম ইন্ডিয়ার বর্তমান হেড কোচ রবি শাস্ত্রী। স্বাভাবিকভাবেই বিশ্বকাপ জয়ের নবম বর্ষপূর্তিতে ভারতীয় দলকে অভিনন্দন জানাতে ভোলেননি শাস্ত্রী।

টুইটারে ধোনির ঐতিহাসিক ছক্কার ভিডিও পোস্ট করে শাস্ত্রী লেখেন, 'অনেক অভিনন্দন ছেলেরা। এই স্মৃতি তোমরা সারাজীবন লালন করবে। ঠিক যেমনটা আমরা ১৯৮৩-র গ্রুপ করে আসছি।'

শাস্ত্রী নিজের টুইটটি ট্যাগ করেন সচিন তেন্ডুলকর ও বিরাট কোহলিকে। পালটা সৌজন্য দেখিয়ে টুর্নামেন্টের সেরা যুবরাজ সিং ধন্যবাদ জ্ঞাপণ করেন শাস্ত্রীকে। তবে ট্যাগ করার বিষয়টি নিয়ে ৮৩-র বিশ্বজয়ী দলের সদস্য শাস্ত্রীকে বিব্রত করার সুযোগ হাতছাড়া করেননি যুবি।

নিতান্ত মজার ছলে যুবরাজ রি-টুইটে লেখেন, 'ধন্যবাদ সিনিয়র। তবে তুমি আমাকে আর মাহিকেও ট্যাগ করতে পারতে, আমরাও বিশ্বকাপ জয়ের ভাগীদার ছিলাম।' সঙ্গে একটি স্মাইলি ইমোজিও যোগ করেন যুবি।

পরে শাস্ত্রী যুবরাজের টুইটের উত্তর দেন আন্তরিকতার সঙ্গে। ভারতীয় কোচ লেখেন, 'প্রসঙ্গ যখন বিশ্বকাপের, তখন তোমরা জুনিয়র নও। তুমি তো কিংবদন্তি।'

২০১১-র ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে ৬ উইকেটে পরাজিত করে দ্বিতীয়বারের মতো আইসিসি ওয়ান ডে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত। ফাইনালের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন ধোনি। টুর্নামেন্টের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার উঠেছিল যুবরাজ সিংয়ের হাতে।

বন্ধ করুন