বাংলা নিউজ > টেকটক > এক ছাতার তলায় ১১০ কোটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট! ভারতে আসবে আর্থিক উদ্ভাবনের জোয়ার

এক ছাতার তলায় ১১০ কোটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট! ভারতে আসবে আর্থিক উদ্ভাবনের জোয়ার

অ্যাকাউন্ট অ্যাগ্রিগেটরের ফ্রেমওয়ার্ক। গ্রাফিক্স: হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা (Soumick/HT Bangla)

Account Aggregator: এর আগেই বেশ কিছু বেসরকারি এবং কিছু পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্ক AA ফ্রেমওয়ার্কে যুক্ত ও লাইভ হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (SBI), কানারা ব্যাঙ্ক, পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক (PNB) এবং ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্ক সহ দেশের বৃহত্তম PSU ব্যাঙ্কগুলি এতদিন এর অংশ ছিল না।

অ্যাকাউন্ট অ্যাগ্রিগেটর (AA) ইকোসিস্টেমে জোয়ার। অ্যাগ্রিগেটর প্ল্যাটফর্মে প্রবেশ করল দেশের সকল পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্ক (PSU)। টুইটার পেজ সহামতির টুইট অনুযায়ী, বর্তমানে ১১০ কোটিরও বেশি অ্যাকাউন্ট অ্যাকাউন্ট অ্যাগ্রিগেটর সিস্টেমের সঙ্গে যুক্ত।

এর আগেই বেশ কিছু বেসরকারি এবং কিছু পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্ক AA ফ্রেমওয়ার্কে যুক্ত ও লাইভ হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (SBI), কানারা ব্যাঙ্ক, পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক (PNB) এবং ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্ক সহ দেশের বৃহত্তম PSU ব্যাঙ্কগুলি এতদিন এর অংশ ছিল না।

জুলাইয়ের শেষের দিকে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন এই সরকারি ব্যাঙ্কগুলিকে AA ফ্রেমওয়ার্কে লাইভ হওয়ার নির্দেশ দেন বলে জানা গিয়েছে।

দেশের প্রধান PSU ব্যাঙ্কগুলির অংশগ্রহণ করার ফলে, এবার অ্যাকাউন্ট অ্যাগ্রিগেটরের কাজ অনেকটাই এগিয়েছে বলা যেতে পারে। তবে আগামিদিনে আরও কাজ বাকি।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে, জানা যায়, SBI-ও অ্যাকাউন্ট অ্যাগ্রিগেটরের অংশ হতে চলেছে। কিন্তু তার জন্য একটি কম্পেনসেশন মডেলের বিষয়ে আলোচনা করছিল তারা। কেন? কারণ স্টেট ব্যাঙ্কের মতে, এই প্ল্যাটফর্মে সবচেয়ে বেশি তথ্য প্রদানকারী হবে তারা। আর তার বিনিময়ে চালনার জন্য টাকার প্রয়োজন ব্যাঙ্কের।

ছবি: টুইটার
ছবি: টুইটার (Twitter)

স্টেট ব্যাঙ্ক তার কাছে থাকা বিশাল ডেটার পুল পরিচালনা এবং শেয়ার করার জন্য প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো নিয়েও কাজ করছে। এর জন্য অতিরিক্ত সাইবার নিরাপত্তা এবং নিরীক্ষণের প্রয়োজন।

অ্যাকাউন্ট অ্যাগ্রিগেটর (AA) ফ্রেমওয়ার্ক কী?

AA ইকোসিস্টেমের মাধ্যমে রিয়েল-টাইম হিসাবে দেশের বিভিন্ন ব্যাঙ্কের আর্থিক তথ্য ভাগ করে নেওয়ার যাবে। ফিনান্সিয়াল ইনফরমেশন প্রোভাইডার (FIPs) এবং ফিনান্সিয়াল ইনফরমেশন ইউজার (FIUs)-এর মধ্যে ডেটার প্রবাহ কার্যকর হবে। এটি রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার ছাড়পত্র প্রাপ্ত। ব্যবহারকারীরকে কী কী ডেটা ভাগ করা যাবে, সে বিষয়ে সম্মতি দিতে হবে।

AA প্রকৃতপক্ষে ব্যাঙ্কিংয়ের সঙ্গে জড়িত তথ্যাদির একটি প্ল্যাটফর্ম হিসাবে কাজ করবে।

CAMFinServ, Perfios অ্যাকাউন্ট অ্যাগ্রিগেশন সার্ভিসেস, Finvu, Yodlee Finsoft, NESL অ্যাসেট ডেটা, Finsec AA সলিউশন সহ একাধিক সংস্থা অ্যাগ্রিগেটর হিসাবে RBI থেকে অনুমোদন পেয়েছে।

তার পাশাপাশি, PhonePe, Setu এবং Tally-র মতো সংস্থাগুলিও RBI থেকে নীতিগত অনুমোদন পেয়েছে।

গত এপ্রিলে, ভারতের বাজার নিয়ন্ত্রক সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ড অফ ইন্ডিয়া (SEBI) জানায় যে, তারাও এই অ্যাকাউন্ট অ্যাগ্রিগেটর কাঠামোতে যোগ দেবে।

বর্তমানে, প্রত্যেক সরকারি ব্যাঙ্কই এক-একটি অ্যাগ্রিগেটরের সঙ্গে কাজ করছে। এদিকে বেসরকারি খাতের ব্যাঙ্কগুলি সমস্ত AA পরিষেবা প্রদানকারীর সঙ্গেই কাজ করছে। আগামিদিনে PSU ব্যাঙ্কগুলিও AA পরিষেবাগুলি অফার করে এমন সমস্ত সংস্থার সঙ্গে কাজ করবে বলে মনে করা হচ্ছে। সেটা বাস্তবায়িত হলে, গ্রাহকরা কোন AA-এর অ্যাপ ব্যবহার করতে চান তা নিজেরা ব্যবহার করার অপশন পাবেন।

বন্ধ করুন