বাংলা নিউজ > টেকটক > Cyber Crime: গত ৩ বছরে ৫ গুণ বেড়েছে কেস, বাড়ছে দুশ্চিন্তা

Cyber Crime: গত ৩ বছরে ৫ গুণ বেড়েছে কেস, বাড়ছে দুশ্চিন্তা

 প্রতীকী ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা (Soumick Majumdar/HT Bangla)

কোভিড লকডাউনের সময়ে ফিশিং অ্যাটাক, আর্থিক জালিয়াতি, মেল-স্প্যাম এবং রানসমওয়্যার হানা বৃদ্ধি পেয়েছিল। বাড়ি থেকে ইন্টারনেটে কাজ করার ফলে আরও বেশি ব্যক্তি সাইবার হানার কবলে পড়েছেন,' জানিয়েছে ইলেকট্রনিক্স ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক(Meity)।

তিন বছর। ২০১৮ সাল থেকে ২০২১ সাল। এটুকু সময়পর্বের মধ্যেই দেশে ৫ গুণ বেড়েছে সাইবার ক্রাইম। এমনটাই বলছে, ইলেকট্রনিক্স এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক(Meity)। সংসদীয় প্যানেলকে এই তথ্য দেওয়া হয়েছে।

কম্পিউটার সিকিউরিটির সরকারি সংস্থা ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম (Cert-In)। তাদের উপলব্ধ ডেটা অনুযায়ী ২০১৮ সালে ২,০৮,৪৫৬টি সাইবার ক্রাইমের কেস রেকর্ড রয়েছে। সেখান থেকে বেড়ে ২০২১ সালে সেই সংখ্যাটা ১৪,০২,৮০৯ হয়েছে। ২০২২ সালেও অব্যাহত সেই ধারা। প্রথম দুই মাসে, ২,১২,৪৮৫টি এই সাইবার ক্রাইমের ঘটনা রেকর্ডেড হয়েছে।

'ভারতে গত ৩ বছরে সাইবার জালিয়াতি এবং বিভিন্ন সাইবার-সম্পর্কিত অপরাধ উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি পেয়েছে। কোভিড লকডাউনের সময়ে ফিশিং অ্যাটাক, আর্থিক জালিয়াতি, মেল-স্প্যাম এবং রানসমওয়্যার হানা বৃদ্ধি পেয়েছিল। বাড়ি থেকে ইন্টারনেটে কাজ করার ফলে আরও বেশি ব্যক্তি সাইবার হানার কবলে পড়েছেন,' জানিয়েছে ইলেকট্রনিক্স ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক(Meity)।

শুধু ভারতই নয়। এই সময়পর্বে বিশ্বব্যাপী সাইবার হানা বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনা বিধির কারণে আরও বেশি মানুষ অনলাইনে কাজ, বিনোদন লেনদেন, পড়াশোনা, ব্যবসা সংক্রান্ত কাজ করছেন। তার ফলে আরও বেশি শিকারের সুযোগ পাচ্ছে সাইবার হানাদাররা।

উক্ত বিষয় নোট করে, সংসদীয় প্যানেল মন্ত্রকের কাছে এর থেকে নিষ্কৃতির উপায় জানতে চায়। 'পেগাসাসের মতো সফ্টওয়্যার নাগরিকদের উপর মোতায়েন করা হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে কী পদক্ষেপ করা হচ্ছে?,' জানতে চায় প্যানেল।

উত্তরে আইটি মন্ত্রক প্যানেলকে বলে, 'পরিস্থিতির ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ২০২০ সালে সাইবার নিরাপত্তায় ১৯৩টি দেশের মধ্যে ভারত শীর্ষ ১০টি দেশের মধ্যে ছিল৷ সেখানে ২০১৮ সালে ৪৭তম অবস্থানে ছিল।'

বন্ধ করুন