বাংলা নিউজ > টেকটক > নয়া আইনের জেরে কি ভারতে বন্ধ হবে ফেসবুক, টুইটার? কী জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা
২৬ মে কি ফেসবুক, টুইটার বন্ধ হয়ে যাবে ভারতে? (ছবি সৌজন্যে রয়টার্স)
২৬ মে কি ফেসবুক, টুইটার বন্ধ হয়ে যাবে ভারতে? (ছবি সৌজন্যে রয়টার্স)

নয়া আইনের জেরে কি ভারতে বন্ধ হবে ফেসবুক, টুইটার? কী জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা

  • ২৬ মে কি ফেসবুক, টুইটার বন্ধ হয়ে যাবে ভারতে? এই প্রশ্ন এখন সবার মনে।

২৬ মে কি ফেসবুক, টুইটার বন্ধ হয়ে যাবে ভারতে? এই প্রশ্ন এখন সবার মনে। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের জন্য নতুন নিয়ম চালু করেছিল ভারত সরকার৷ তিন মাস আগে চালু করা সেই নিয়মকানুন লাগু করার শেষ দিন আজ৷ কিন্তু এখনও অনেক বড় বড় সেশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম সেই নিয়ম লাগু করেনি৷ তাই ভারতে টুইটারের মতো বড় প্ল্যাটফর্মের কর্মপদ্ধতি নিয়ে সমস্যা দেখা দিতে পারে৷ এই আবহে কি ফেসবুক, টুইটারের মতো সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলি বন্ধ হয়ে যাবে?

ইন্টারমিডিয়ারি গাইডলাইনস অ্যান্ড মিডিয়া এথিক্স নিয়মের অধীনে ২৫ ফেব্রুয়ারি গ্যাজেটি এফ ইন্ডিয়ায় নোটিস দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার প্ল্যাটফর্মগুলির জন্য নতুন গাইডলাইন জারি করে৷ সূত্রের খবর প্রথম সারির সোশ্যাল মিডিয়া, টুইটার, ফেসবুকের মতো বড় বড় প্ল্যাটফর্মগুলি এখনও সেই সব নিয়ম মানেনি৷ কিন্তু সরকারি নিয়মাবলী ২৬ মে থেকে কার্যকর করা হবে৷

এই আবহে কেন্দ্র এই সাইটগুলির বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিতে পারে। সোশ্যাল মিডিয়াগুলি সরকারের নয়া নিয়ম না মানায় আইটি আইন ২০০০-এর অধীনে থাকা ৭৯ নম্বর ধারা অনুযায়ী যেই সুরক্ষা পেত, তা শেষ হয়ে যাবে। ধারা ৭৯ নিশ্চিত করে যে কোনও ব্যক্তি সোশ্যাল মিডিয়াতে কোনও আপত্তিকর পোস্ট করলে তার দায়বদ্ধতা সংস্থার হবে না। সেই ক্ষেত্রে এখনই যে ফেসবুক, টুইটারের ঝাঁপ বন্ধ হবে, এমনটা নয়। এর জেরে এই সংস্থাগুলির বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করতে পারবে কেন্দ্র।

এদিকে ফেসবুক একটি বিবৃতি জারি করেছে। সংস্থার তরফে বলা হয়, আমরা ভারত সরকারের নিয়ম মেনে চলবে, তবে কিছু বিষয়ে এখনও আলোচনা চলছে। আইটি আইন অনুসারে যে নীতি প্রণয়ন করার কথা বলা হয়েছে, আমরা সেগুলি মানতে প্রস্তুত এবং আমাদের কাজের উন্নতি করা হচ্ছে। আমরা মানুষকে নিরাপদ থাকতে এবং নির্দ্বিধায় কথা বলতে একটি প্ল্যাটফর্ম দিয়েছি।

বন্ধ করুন