বাংলা নিউজ > টেকটক > ৯ বছরে দেশের সেল্ফ-মেড ধনীতম মহিলা হয়ে ওঠা! Nykaa-র নায়িকা ফাল্গুনীর কাহিনি
ফাইল ছবি : মিন্ট (MINT_PRINT)
ফাইল ছবি : মিন্ট (MINT_PRINT)

৯ বছরে দেশের সেল্ফ-মেড ধনীতম মহিলা হয়ে ওঠা! Nykaa-র নায়িকা ফাল্গুনীর কাহিনি

  • মাত্র ৯ বছরে Britannia, Godrej, এবং IndiGo-র মতো পুরনো বড় সংস্থার নেট ওয়ার্থকে ছাড়িয়ে গেলেন কীভাবে?

ভারতের ব্যবসা-বাণিজ্যের ইতিহাসে শেষ এমনটা কবে হয়েছে? মাত্র ৯ বছরের সংস্থা। তার মধ্যেই দেশের ধনীতমদের তালিকায় উঠে এলেন সংস্থার প্রধান। নারী ক্ষমতায়নের নজির সৃষ্টি করলেন Nykaa-র প্রতিষ্ঠাতা সিইও ফাল্গুনী নায়ার।

২০২১ সাল। ৪৯ বছর বয়সে উচ্চপদস্থ ইনভেস্টমেন্ট ব্যাঙ্কারের লোভনীয় চাকরি ছাড়েন ফাল্গুনী। স্থাপন করেন Nykaa । আর আজ,

১. ভারতের ধনীতম সেল্ফ-মেড মহিলা ফাল্গুনী নায়ার। শেয়ার বাজারে Nykaa-র প্রবেশের পর তাঁর নেট ওয়ার্থ প্রায় ৪৮ হাজার কোটি টাকা।

২. বর্তমানে ভারতের ধনীতম ২০ জনের মধ্যে একজন তিনি। ১৭ তম স্থানে নাম তাঁর।

বর্তমানে দুঁদে ব্যবসায়ী ফাল্গুনী। তবে পড়াশোনাতেও অত্যন্ত মেধাবী ছিলেন তিনি। আইআইএম আহমেদাবাদের কৃতী ছাত্রী তিনি। কোটাক মাহিন্দ্রায় বিনিয়োগ সংক্রান্ত প্রধান পদে কাজ করতেন তিনি।

২০১৭-এ এক সাক্ষাত্কারে তিনি বলেছিলেন, ‘গুজরাটি বাড়ির মেয়ে। ব্যবসা রক্তেই ছিল হয় তো।’

কীভাবে মাত্র ৯ বছরে Britannia, Godrej, এবং IndiGo-র মতো পুরনো বড় সংস্থার নেট ওয়ার্থকে ছাড়িয়ে গেলেন তিনি?

আইপিও লিস্টিং উদযাপনে ফাল্গুনী নায়ার ও তাঁর কন্যা। ছবি : পিটিআই
আইপিও লিস্টিং উদযাপনে ফাল্গুনী নায়ার ও তাঁর কন্যা। ছবি : পিটিআই (PTI)

প্রারম্ভিক বছরগুলিতে ফাল্গুনী এবং তার স্বামী সঞ্জয় নায়ার-ই বিনিয়োগ করেছিলেন নায়িকায়। সঞ্জয় নায়ার ইক্যুইটি মেজর KKR & Co. এর চেয়ারম্যান। ফলে প্রাথমিক পুঁজিতে কিছুটা সুবিধা পেয়েছিলেন তিনি।

'সেই সময়ে ব্যবসা দুই বছর ধরে পারিবারিক তহবিলের টাকায় চলেছিল। সেই পর্যায়ে আমি অর্থ সংগ্রহ করতে চাইনি। আগে ব্যবসায় একটা গতি আসুক, সেটাই চেয়েছিলাম,' ২০১৭-এ এক সাক্ষাত্কারে বলেছিলেন ফাল্গুনী।

‘মোটামুটি পুরো অপারেশানস চলতে শুরু করল। তারপরেই আমরা বাইরের বিনিয়োগকারী খুঁজতে শুরু করি। সেটা আমাদের পক্ষে কিছুটা সহজ ছিল। কারণ আমার স্বামী এবং আমি দুজনেই ব্যাঙ্কার ছিলাম।’

এর পর মাত্র ৫ রাউন্ডে তহবিল জোগাড় করেছিল Nykaa । মাত্র ৩ জন প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ছিলেন। ২০২০ সালের মার্চ মাসেই লাভের মুখ দেখতে শুরু করে দেয় সংস্থা। ২০২০ সালে ৬১.৯ কোটি টাকার মুনাফা করে Nykaa। সাধারণত এই ধরণের অনলাইন স্টার্ট আপে এত তাড়াতাড়ি মুনাফা শুরু হয় না। আগামিদিনের কথা ভেবে কোটি কোটি টাকা ঢেলেই যান বিনিয়োগকারীরা। কিন্তু Nykaa-র গল্পটা আলাদা।

Nykaa-এর প্রায় অর্ধেক মালিকানা ফাল্গুনীর। এই মুহূর্তে তাঁর নেট ওয়ার্থ প্রায় ৬.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৪৮ হাজার কোটি টাকারও বেশি। ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার্স ইনডেক্স অনুসারে, তিনি ভারতের সবচেয়ে ধনী মহিলা বিলিয়নেয়ার হয়ে উঠেছেন। পুরোটাই নিজের স্থাপন করা ব্যবসায়। 

বন্ধ করুন