বাংলা নিউজ > টেকটক > Jupiter closet to earth in 59 years: ৫৯ বছর পর আজ পৃথিবীর সবথেকে কাছে আসছে বৃহস্পতি, কখন ও কীভাবে দেখতে পাবেন?

Jupiter closet to earth in 59 years: ৫৯ বছর পর আজ পৃথিবীর সবথেকে কাছে আসছে বৃহস্পতি, কখন ও কীভাবে দেখতে পাবেন?

১৯৬৩ সালের পর সোমবার পৃথিবীর এত কাছে আসতে চলেছে বৃহস্পতি। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে এপি/পিটিআই)

Jupiter closet to earth in 59 years: ১৯৬৩ সালের পর সোমবার পৃথিবীর এত কাছে আসতে চলেছে বৃহস্পতি। সেইসময় দুই গ্রহের দূরত্ব কমে দাঁড়াবে প্রায় ৩৬৭ মিলিয়ন মাইল (১৯৬৩ সালেও এরকম দূরত্ব ছিল)। এমনিতে সবথেকে দূরের বিন্দু থেকে প্রায় ৬০০ মিলিয়ন মাইল দূরে অবস্থান করে বৃহস্পতি।

প্রায় ৬০ বছর পৃথিবীর সবথেকে কাছে আসতে চলেছে বৃহস্পতি। আকাশ পরিষ্কার থাকলে যে দৃশ্য আজ (সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর) রাতভর দেখা যাবে। এমনটাই জানিয়েছে মার্কিন মহাকাশ সংস্থা ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (নাসা)।

এমনিতে ১৩ মাস অন্তর পৃথিবী থেকে বৃহস্পতিকে আরও উজ্জ্বল এবং বড় দেখায়। তবে ১৯৬৩ সালের পর সোমবার পৃথিবীর এত কাছে আসতে চলেছে বৃহস্পতি। বৈপরীত্যে আসবে সৌরজগতের সবথেকে বড় গ্রহ। সেইসময় দুই গ্রহের দূরত্ব কমে দাঁড়াবে প্রায় ৩৬৭ মিলিয়ন মাইল (১৯৬৩ সালেও এরকম দূরত্ব ছিল)। এমনিতে সবথেকে দূরের বিন্দু থেকে প্রায় ৬০০ মিলিয়ন মাইল দূরে অবস্থান করে বৃহস্পতি।

আরও পড়ুন: Jupiter near Earth: মহালয়ার পরই বিরল মহাজাগতিক ঘটনা! ৫৯ বছর পর পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে বৃহস্পতি আসন্ন

উল্লেখ্য, নাসার তরফে জানানো হয়েছে, বৈপরীত্য তৈরি হয়, যখন পশ্চিম আকাশে সূর্য অস্ত যাওয়ার পর পূর্ব আকাশে একটি মহাজাগতিক বস্তুর উদয় হয়। অর্থাৎ পৃথিবীর বিপরীত দিকে অবস্থান করে সূর্য এবং মহাজাগতিক বস্তু (এক্ষেত্রে সৌরজগতের সবথেকে বড় গ্রহ বৃহস্পতি)। সেই কারণেই এবার বৃহস্পতি সবথেকে কাছে চলে আসার বিষয়টি এতটা আকর্ষণীয় হতে চলেছে বলে মত জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের। তাঁদের বক্তব্য, বৃহস্পতি যখন পৃথিবীর কাছে আসে, তখন খুব কমক্ষেত্রেই বৈপরীত্য হয়।

কীভাবে বৃহস্পতি দেখা যাবে?

নাসার তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, '৫৯ বছরে পৃথিবীর সবথেকে কাছে আসতে চলেছে বৃহস্পতি। আবহাওয়া ঠিকঠাক থাকলে ২৬ সেপ্টেম্বর দুর্দান্তভাবে বৃহস্পতি দেখা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস দেখতে ভালোমানের এক জোড়া দূরবীন (বাইনোকুলার) যথেষ্ট। গ্রেট রেড স্পট দেখতে একটা বড় টেলিস্কোপ লাগবে।'

বিষয়টি আরও স্পষ্টভাবে জানিয়েছেন আলাবামায় নাসার মার্শাল স্পেশ ফ্লাইট সেন্টারের জ্যোতির্পদার্থবিদ অ্যাডাম কোবেলস্কি। তিনি বলেছেন, ‘ভালো দূরবীন থাকলে ব্যান্ডিং (নিদেনপক্ষে সেন্ট্রাল ব্যান্ড) এবং তিনটি বা চারটি গ্যালেলিয়ান উপগ্রহ দেখা যাবে। মনে রাখতে হবে যে সপ্তদশ শতাব্দীর প্রযুক্তি দিয়ে চাঁদ দেখেছিলেন গ্যালিলিও। যাই জিনিস ব্যবহার করুন, তা ঠিকভাবে ধরে রাখা অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হবে।’

আরও পড়ুন: DART: শীঘ্রই গ্রহাণুতে ইচ্ছা করে ‘ধাক্কা’ মারবে NASA-র মহাকাশযান! জানুন কেন

ওড়িশা টিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভুবনেশ্বরের পাথানি সামন্ত প্ল্যানেটোরিয়ামের ডেপুটি ডিরেক্টর শুভেন্দু পট্টনায়েক জানিয়েছেন, গত ৫৯ বছরে পৃথিবীর সবথেকে কাছে আসতে চলেছে বৃহস্পতি। দূরবীন, টেলিস্কোপ ছাড়াই বৃহস্পতি দেখতে পারবেন মানুষ। তিনি জানিয়েছেন, খালি চোখেই বৃহস্পতি দেখা যাবে।

বন্ধ করুন