বাংলা নিউজ > টেকটক > Nokia 8210 and Nokia 110: 4G-তে ফিরল Nokia-র পুরনো ফোন, দাম একেবারে সস্তা, পাবেন ৪,০০০ টাকার কমেই
ছবি: নোকিয়া (Nokia)

Nokia 8210 and Nokia 110: 4G-তে ফিরল Nokia-র পুরনো ফোন, দাম একেবারে সস্তা, পাবেন ৪,০০০ টাকার কমেই

Nokia Retro Phones: যাঁরা রেট্রো জিনিস ব্যবহার করতে পছন্দ করেন, তাঁদের এটি মনে ধরতে বাধ্য। বিশেষত, ৮০-৯০-এর দশকের প্রজন্ম, যাঁদের ছোটবেলা মানেই ছিল নোকিয়া ফোন, ক্যাসিও-র ডিজিটাল ঘড়ি, বুট কাট জিনস, ফসিলসের গান।

বোতাম ফোন। একটা কিনলেই বছরের পর বছর চলবে। নোকিয়ার পুরনো ফোনগুলির কথা ভাবলেই এগুলি মনে পড়ে যায় অনেকের। তাঁদের জন্যই এবার সুখবর। পুরনো, বোতাম-টেপা ফোনই এবার ফেরত আনছে নোকিয়া। তবে সেই একইভাবে নয়। বাইরের মোড়কটা একই থাকছে। তবে ভিতরটা একেবারে বদলে দিয়েছে নোকিয়া। আধুনিক, ৪জি কানেকশন দিয়ে আনা হল Nokia 8210 4G। সেই সঙ্গে আরও একটি মডেল Nokia 110 আনল সংস্থা। দু'টির দামই বেশ আকর্ষণীয়।

Nokia 8210 4G

১৯৯৯ সালে লঞ্চ হয়েছিল Nokia 8210। এবার সেটাই 4G সাপোর্ট-সহ আনল নোকিয়া। থাকছে ২.৮ ইঞ্চি QVGA কালার ডিসপ্লে, LTE সংযোগ এবং একটি মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ৩২ GB পর্যন্ত স্টোরেজ সাপোর্ট রয়েছে।

মজার বিষয় হল, এতে মোটামুটি কাজ চালানোর মতো ক্যামেরাও যোগ করেছে নোকিয়া।

ফোনটি পলিকার্বোনেট থেকে তৈরি। স্যান্ড, ব্লু এবং লাল রঙে পাবেন। রিমুভেবল ১,৪৫০ mAH ব্যাটারি আছে। তাতে 4G-তে ছয় ঘণ্টা টকটাইম এবং স্ট্যান্ডবাইতে ১৯ দিন পর্যন্ত রেটিং করা হয়েছে।

অন্যান্য ফিচার্সের মধ্যে থাকছে এফএম রেডিয়ো রিসিভার, ইয়ারবাড, MP3 প্লেয়ার এবং সবার প্রিয় স্নেক গেমও।

নোকিয়া ৮২১০ ৪জি: দাম

নোকিয়ার আপডেটেড ফিচার ফোনের দাম রাখা হয়েছে ৩,৯৯৯ টাকা। লাল ও নীল রঙের অপশন পাবেন।

Nokia 110 4G

নোকিয়া ১১০ ৪জি
নোকিয়া ১১০ ৪জি (Nokia 110 4G)

এই ফোনটিও যেন নস্ট্যালজিয়ায় ভরপুর। তবে এটা একেবারে নতুন লঞ্চ বলা যায় না। কারণ গত বছরই নোকিয়া ১১০-এর নতুন ৪জি ভার্সান এনেছে নোকিয়া। সেটার বিক্রি ভাল হওয়ায়, এবার আরেকটি আপডেটেড ভার্সান আনল নোকিয়া।

ফোনটিতে আগের তুলনায় আরও ভাল ব্যাটারি দিয়েছে নোকিয়া। ডিজাইন পুরনো ফোনের মতো রেখেই আরও আপডেট করা হয়েছে। নিও-রেট্রো ডিজাইন যাঁরা পছন্দ করেন, তাঁদের জন্য সেরা ফোন হতে পারে এটি।

নোকিয়া ১১০ ৪জি: দাম

নোকিয়া ১১০ ৪জি-র দাম রাখা হয়েছে মাত্র ১,৬৯৯ টাকা। রোজ গোল্ড কালার ভ্যারিয়েন্টের দাম ১০০ টাকা বেশি।

কিন্তু এখনকার দিনে কারা এই ফোন কিনবেন?

এক কথায়, যাঁরা রেট্রো জিনিস ব্যবহার করতে পছন্দ করেন, তাঁদের এটি মনে ধরতে বাধ্য। বিশেষত, ৮০-৯০-এর দশকের প্রজন্ম, যাঁদের ছোটবেলা মানেই ছিল নোকিয়া ফোন, ক্যাসিও-র ডিজিটাল ঘড়ি, বুট কাট জিনস, ফসিলসের গান।

যাঁদের দামি স্মার্টফোন আছে, কিন্তু যাতায়াত, কায়িক পরিশ্রমের কাজ ইত্যাদিক সময়ে সেটা ব্যবহার করতে ভয় করে।

ব্যাক আপ ফোন হিসাবে এটা রাখা যেতে পারে। স্মার্টফোন খারাপ হয়ে গেলে বা ব্যাটারি ফুরিয়ে যাওয়ার সময়ে এই দিয়ে কাজ চালানো যাবে।

শুধু তাই নয়। পুরনো ফোনগুলিকে যথেষ্ট আপডেট করেছে নোকিয়ার মালিক সংস্থা HMD। তাই আগের থেকে ভালো ক্যামেরা, স্ক্রিন, 4G ইন্টারনেট, ব্যাটারি ব্যাকআপ পাবেন। চার্জারও এখনকার ইউএসবি তারের সঙ্গে কম্প্যাটিবল।

বন্ধ করুন