বাংলা নিউজ > টেকটক > এক চার্জেই চলবে ২৪০ কিলোমিটার, শীঘ্রই আসছে Ola ই-স্কুটার
ছবি : টুইটার (Twitter) (Twitter)
ছবি : টুইটার (Twitter) (Twitter)

এক চার্জেই চলবে ২৪০ কিলোমিটার, শীঘ্রই আসছে Ola ই-স্কুটার

ছবি থেকে স্কুটারটির ডিজাইনে কিছুটা রেট্রো ইউরোপীয় ছাপ স্পষ্ট। হঠাত্ দেখে ভেসপা-র স্কুটারের কথা মনে পড়তে বাধ্য।

এক চার্জেই চলবে ২৪০ কিলোমিটার, শীঘ্রই আসছে Ola ই-স্কুটার

ভারতেই বিশ্বে বৃহত্তম ই-স্কুটার কারখানা। আর সেখানেই রেকর্ড হারে উত্পাদন হবে Ola Electric-এর প্রথম ই-স্কুটার। নতুন ই-স্কুটারের ছবিও সোমবার অফিসিয়ালি প্রকাশ করল সংস্থা।

ছবি থেকে স্কুটারটির ডিজাইনে কিছুটা রেট্রো ইউরোপীয় ছাপ স্পষ্ট। হঠাত্ দেখে ভেসপা-র স্কুটারের কথা মনে পড়তে বাধ্য। আর তা হবে নাই বা কেন। প্রকৃতপক্ষে এটি নেদারল্যান্ড-এর Etergo সংস্থার Appscooter-এর উপর ভিত্তি করে তৈরী। সংস্থাটি অধিগ্রহণ করার পর তাদের ডিজাইনের উপর ভিত্তি করেই এগোচ্ছে ওলা ইলেকট্রনিক।

ইউরোপীয় বাজারে স্কুটারটির রেঞ্জ ২৪০ কিলোমিটার। ভারতীয় বাজারের ক্ষেত্রে দাম সস্তা রাখতে কম শক্তিশালী ব্যাটারি ব্যবহার করতে পারে সংস্থা। সেক্ষেত্রে সামান্য কমতে পারে রেঞ্জ। সেক্ষেত্রেও খুব সমস্যা হওয়ার কথা নয়। এর কারণ এর রিমুভেবল ব্যাটারি সেট আপ। স্কুটারটির কোনও স্পেসিফিকেশন এখনও প্রকাশ করেনি সংস্থা।

তামিলনাড়ুর কৃষ্ণগিরি জেলায় ৩৩০ মিলিয়ন ডলারের মেগা ফ্যাক্টরিতে উত্পাদিত হবে এই ই-স্কুটার। সংস্থার দাবি, এটিই বিশ্বের বৃহত্তম ইলেকট্রিক স্কুটারের কারখানা। সম্পূর্ণরূপে চালু হয়ে গেলে এই কারখানায় প্রতি দুই সেকেন্ডে একটি স্কুটার তৈরী হবে।

স্কুটারের দাম যাতে সস্তা থাকে, সেই লক্ষ্যে ভারতের কারখানাতেই ব্যাটারি, মোটর, গাড়ির কম্পিউটার সংক্রান্ত যন্ত্রপাতি ও সফটওয়্যার উত্পাদন করা হবে বলে জানিয়েছে সংস্থা।

কারখানাটিতে ৩,০০০টিরও বেশি রোবট স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাজ করবে। হবে কর্মসংস্থানও। প্রায় ১০,০০০ কর্মী কাজ করবেন সেখানে।

বিদ্যুত্ উত্পাদনের ক্ষেত্রেও নজির সৃষ্টি করতে চলেছে সংস্থা। কারখানার ছাদে বসানো থাকবে সৌর বিদ্যুত্-এর প্যানেল। এই প্যানেলের সাহায্যে নিজস্ব বিদ্যুত্ উত্পাদন করা হবে।

বন্ধ করুন