বাংলা নিউজ > টেকটক > TikTok Blackout challenge: মারণ খেলায় ভাইরাল হওয়ার ফিকির, চিন্তিত অভিভাবকরা
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স (Reuters)
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স (Reuters)

TikTok Blackout challenge: মারণ খেলায় ভাইরাল হওয়ার ফিকির, চিন্তিত অভিভাবকরা

  • মোমো বা ব্লু হোয়েলের কথা মনে আছে? সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক বিষাক্ত ম্যানিপুলেটিভ গেমে হারিয়ে গিয়েছিল অনেক অবুঝ মন। এবার সেরকমই আরও একটি 'গেম'।

TikTok Blackout challenge: মোমো বা ব্লু হোয়েলের কথা মনে আছে? সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক বিষাক্ত ম্যানিপুলেটিভ গেমে হারিয়ে গিয়েছিল অনেক অবুঝ মন। এবার সেরকমই আরও একটি 'গেম'। আর তা ছড়িয়ে পড়ছে টিকটকের মাধ্যমে। নাম TikTok Blackout Challange ।

সময়ের সঙ্গে এই চ্যালেঞ্জ নিয়ে আশঙ্কায় ভুগছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মা-বাবারা। টিকটকের ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জের সর্বশেষ শিকার হয়েছে ১০ বছর বয়সী নাইলা অ্যান্ডারসন। গত ১২ ডিসেম্বর বেডরুমে মেলে নাইলার নিথর দেহ।

গত কয়েক মাসে ভাইরাল এই 'গেমে' অংশ নিয়ে প্রাণ হারানো বেশ কিছু শিশুদের মধ্যে নাইলা মাত্র একজন। গত জুনে, ম্যাসাচুসেটসে এই চ্যালেঞ্জের পরে ১৩ বছর বয়সী নেট স্কোয়ার্সের মৃত্যু হয়। অস্ট্রেলিয়ায় ১৪ বছর বয়সী জেমস বয়েড-গারজেলির ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জের চেষ্টা করার ঠিক একদিন পরেই মৃত্যু হয়। স্ট্র্যাংগুলেশন চ্যালেঞ্জ নামে আরেকটি অনুরূপ চ্যালেঞ্জও ভাইরাল হয়েছে। আর অপরিণত মনে তা খেলার ছলে নিতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছে বেশ কিছু শিশু-কিশোর।

ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় স্কুল এবং পুলিশ-প্রশাসন। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলিও এই ধরনের কনটেন্ট রোধে উঠেপড়ে লেগেছে। তবে টিকটকের বিরুদ্ধে কোনও দৃঢ় পদক্ষেপে অভাব রয়েছে, মত অভিভাবকদের। 'এই ধরনের বিষয় প্রথম থেকেই বা ছড়াল কীভাবে?' প্রশ্ন তাঁদের। তাহলে কি নিজেদের অ্যাপের উপর কোনও নিয়ন্ত্রণই নেই নির্মাতাদের?

বন্ধ করুন