বাংলা নিউজ > টেকটক > Vedanta-Foxconn: গুজরাটে ১.৫৪ লক্ষ কোটি টাকার চিপ কারখানা! চাকরি হবে ১ লক্ষ
ছবি: টুইটার (Twitter)

Vedanta-Foxconn: গুজরাটে ১.৫৪ লক্ষ কোটি টাকার চিপ কারখানা! চাকরি হবে ১ লক্ষ

Vedanta-Foxconn Chip Plant Gujarat: ভারতে কোনও ব্যবসায়িক গোষ্ঠীর এটাই সর্বোচ্চ এককালীন বিনিয়োগ। প্রায় ১ লক্ষ ৫৪ হাজার কোটি টাকার এই বিনিয়োগের বিষয়ে এমনটাই বলছে গুজরাট সরকার। গেরুয়া শিবিরের দাবি, এর ফলে রাজ্যে বিরোধীদের কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

Vedanta-Foxconn Chip Plant Gujarat: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর গুজরাটে তৈরি হবে সেমিকন্ডাক্টর এবং ডিসপ্লে প্রোডাকশন প্ল্যান্ট। মঙ্গলবার ভারতের বেদান্ত লিমিটেডের সঙ্গে হাত মেলাল তাইওয়ানের ফক্সকন। এই চুক্তির অধীনে প্রায় ১৯.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিপুল বিনিয়োগ করা হবে। Foxconn এই প্রকল্পে প্রযুক্তি সংক্রান্ত অংশীদার হিসাবে কাজ করবে। অন্যদিকে বাণিজ্য গোষ্ঠী বেদান্ত এই প্রকল্পের অর্থায়ন করবে। বর্তমানে বিশ্বজুড়ে সেমি কন্ডাক্টরের বিপুল চাহিদা রয়েছে। সেটাই কা

সোমবার প্রকাশিত রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী, আহমেদাবাদের কাছে যৌথ উদ্যোগে এই উত্পাদন ইউনিট স্থাপন করা হবে। এর জন্য গুজরাট থেকে মূলধন ব্যয় এবং বিদ্যুতের ভর্তুকি পাবে তারা। ইতিমধ্যেই রাজ্যের আধিকারিকদের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

ভারতে কোনও ব্যবসায়িক গোষ্ঠীর এটাই সর্বোচ্চ এককালীন বিনিয়োগ। প্রায় ১ লক্ষ ৫৪ হাজার কোটি টাকার এই বিনিয়োগের বিষয়ে এমনটাই বলছে গুজরাট সরকার। গেরুয়া শিবিরের দাবি, এর ফলে রাজ্যে বিরোধীদের কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

বেদান্ত-ফক্সকনের এই যৌথ উদ্যোগে গুজরাটে ১ লক্ষেরও বেশি কর্মসংস্থান হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিশ্বের বেশিরভাগ চিপ উত্পাদনই তাইওয়ান ও তার সংলগ্ন কয়েকটি দেশে সীমাবদ্ধ। এবার সেই বাজারেই নতুন প্রবেশ করছে ভারত। ইলেকট্রনিক্স উত্পাদনে এক নয়া যুগের সূচনা করতে চাইছে বেদান্ত ও ফক্সকন। 

গত কয়েক বছরে বিশ্বজুড়ে সেমিকন্ডাক্টরের আকাল দেখা দিয়েছে। তার ফলে গাড়ি, ইলেকট্রনিক্স সংস্থাগুলির উত্পাদনও প্রভাবিত হয়। বেড়ে যায় দাম। ফলে বাজারে চাহিদার তুলনায় সেমিকন্ডাক্টরের জোগান কম। সেই সুযোগই এবার নেবে ভারত।

আগামী দুই বছরের মধ্যেই ডিসপ্লে এবং চিপ প্রোডাক্ট উত্পাদন শুরু করা হবে। বেদান্ত-র চেয়ারম্যান অনিল আগরওয়াল এমনটাই জানান। 'ভারতের নিজস্ব সিলিকন ভ্যালির স্বপ্নপূরণে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল,' টুইটে লিখেছেন বেদান্তর চেয়ারম্যান।

ছবি: টুইটার
ছবি: টুইটার (Twitter)

বিবৃতিতে আরও যোগ করা হয়েছে যে, বেদান্ত এবং ফক্সকন জমি, সেমিকন্ডাক্টর গ্রেড জল এবং বিদ্যুৎ ইত্যাদি প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো-সহ হাই-টেক ক্লাস্টার স্থাপনের জন্য রাজ্য সরকারের সঙ্গে কাজ করবে।

এর আগে কারখানা স্থাপনের জন্য মহারাষ্ট্রের কথাও বিবেচনা করছিলেন সংস্থার আধিকারিকরা। কিন্তু শেষমেশ গুজরাটের জমিতেই প্ল্যান্ট স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ফক্সকন একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, গুজরাটের পরিকাঠামো এবং সরকারের সক্রিয় সমর্থন থেকেই তারা এই সেমিকন্ডাক্টর কারখানা স্থাপনের আস্থা পায়।

সরকার জানিয়েছে, সেমিকন্ডাক্টর উত্পাদনে বিনিয়োগকারীদের জন্য প্রাথমিক পর্যায়ে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকার সহায়তা প্রদান করতে তৈরি। প্রয়োজনে তার বেশিও সাহায্য করতে প্রস্তুত গুজরাট সরকার। কারণ আগামিদিনে সেমি কন্ডাক্টরের বাজারে প্রবেশ করলে ভারত দেশে ও সারা বিশ্বে বিপুল রফতানি করতে পারবে। গত বছর থেকেই তাইওয়ানের সঙ্গে নতুন কারখানা স্থাপনের বিষয়ে চলছিল আলোচনা। পড়ুন সেই খবর: বিনিয়োগ নিয়ে এবার তাইওয়ানের সঙ্গে কথা ভারতের, বড় শিল্পস্থাপনের সম্ভাবনা

তবে এটিই ভারতের প্রথম সেমিকন্ডাক্টর প্রকল্প নয়। এর আগে আন্তর্জাতিক কনসোর্টিয়াম ISMC এবং সিঙ্গাপুরের IGSS ভেঞ্চারের উদ্যোগে যথাক্রমে কর্ণাটক এবং তামিলনাড়ুতে প্ল্যান্ট তৈরির ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে এই নিয়ে বেদান্ত তৃতীয় সংস্থা, যা ভারতে চিপ উত্পাদন কারখানা তৈরি করতে চলেছে।

বন্ধ করুন