বাংলা নিউজ > টেকটক > ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডে বিল পেমেন্টে বড় বদল, জেনে নিন নতুন নিয়ম
ফাইল ছবি: পিক্সাবে (Pixabay)

ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডে বিল পেমেন্টে বড় বদল, জেনে নিন নতুন নিয়ম

টোকেনাইজড কার্ড লেনদেন তুলনামূলকভাবে নিরাপদ বলে মনে করা হয়। তার মূল কারণ হল, লেনদেন প্রসেসিংয়ের সময় প্রকৃত কার্ডের ডিটেইলস মার্চেন্টের সঙ্গে শেয়ার করা হয় না।

আগামী ১লা জুলাই থেকে গ্রাহকদের কার্ডের বিবরণ সংরক্ষণে শুরু হচ্ছে বিধিনিষেধ। মার্চেন্ট, পেমেন্ট অ্যাগ্রিগেটর, পেমেন্ট গেটওয়ে এবং অ্যাকোয়ারিং ব্যাঙ্কগুলি আর গ্রাহকদের কার্ডের বিবরণ সেভ করতে পারবে না।

ব্যবসায়িক সংস্থাগুলির ক্ষেত্রে, যারা এই ধরনের ডেটা সেভ করেছে, তাদের সেগুলি উড়িয়ে দিতে হবে। বদলে চালু হবে টোকেনাইজেশন।

আগামী ১ জুলাই থেকে সমস্ত ডেবিট এবং ক্রেডিট কার্ডে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (RBI) লেনদেনের টোকেনাইজেশন লাগু করছে।

টোকেনাইজেশন কী?

টোকেনাইজেশন হল এমন একটি প্রক্রিয়া, যার মাধ্যমে কার্ডের বিবরণ একটি অনন্য কোড(UAC) বা টোকেনের মাধ্যমে প্রতিস্থাপিত হয়। এর ফলে কার্ডের গুরুত্বপূর্ণ বিবরণ প্রকাশ না করেই অনলাইন কেনাকাটা করা যায়।

কেন টোকেনাইজড কার্ড লেনদেন বেশি নিরাপদ বলে মনে করা হয়?

টোকেনাইজড কার্ড লেনদেন তুলনামূলকভাবে নিরাপদ বলে মনে করা হয়। তার মূল কারণ হল, লেনদেন প্রসেসিংয়ের সময় প্রকৃত কার্ডের ডিটেইলস মার্চেন্টের সঙ্গে শেয়ার করা হয় না। লেনদেন ট্র্যাকিং এবং রিকনসিলিয়েশনের উদ্দেশ্যে কার্ড নম্বরের শেষ চারটি সংখ্যা এবং কার্ড প্রদানকারীর নাম সংরক্ষণ করা যেতে পারে। একটি টোকেনের জন্যও গ্রাহকের সম্মতি এবং OTP-ভিত্তিক ভেরিফিকেশন করতে হয়।

কার্ড টোকেনাইজেশনের সময়সীমা

বিষয়টা নতুন নয়। কার্ডের ডিটেইলস টোকেনাইজ করার প্রথম সময়সীমা ছিল ৩০ জুন, ২০২১। কিন্তু মার্চেন্ট এবং পেমেন্ট অ্যাগ্রিগেটরদের পাশাপাশি কার্ড সংস্থাগুলি এবং ব্যাঙ্কগুলির অনুরোধে, এটি ৩১ ডিসেম্বর, ২০২১ পর্যন্ত বাড়ানো হয়। পরে আবার ক্রেডিট, ডেবিট কার্ড টোকেনাইজেশনের সময়সীমা ৩০ জুন, ২০২২ করা হয়।

বন্ধ করুন