বাংলা নিউজ > টেকটক > Wikipedia-র তথ্যে অন্ধ ভরসা করবেন না! বলছে খোদ সুপ্রিম কোর্ট

Wikipedia-র তথ্যে অন্ধ ভরসা করবেন না! বলছে খোদ সুপ্রিম কোর্ট

ফাইল ছবি: হিন্দুস্তান টাইমস (HT Photo)

Wikipedia-র মতো ওয়েবসাইট মূলত 'ক্রাউড সোর্সড'। অর্থাত্, স্বেচ্ছাসেবী এডিটররা প্রয়োজন মতো উইকিপিডিয়ার কনটেন্ট লেখেন, এডিট করেন। ফলে তাতে ভুল তথ্য, খবর থাকতেই পারে। বিচারপতি সূর্য্য কান্ত এবং বিক্রম নাথের বেঞ্চ এই বিষয়টিই তুলে ধরেছেন। তবে বিনামূল্যে জ্ঞানের ভাণ্ডার হিসাবে এর গুরুত্ব অনস্বীকার্য।

Wikipedia-র মতো ওয়েবসাইটগুলি সম্পূর্ণভাবে নির্ভরযোগ্য নয়। ফলে এগুলি থেকে প্রাপ্ত তথ্য ভুল হতেই পারে। এমনই পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের। সকলেই জানেন, উইকিপিডিয়ার মতো ওয়েবসাইট মূলত 'ক্রাউড সোর্সড'। অর্থাত্, স্বেচ্ছাসেবী এডিটররা নিজেরাই প্রয়োজন মতো উইকিপিডিয়ার কনটেন্ট লেখেন, এডিট করেন। ফলে তাতে ভুল তথ্য, খবর থাকতেই পারে। বিচারপতি সূর্যকান্ত এবং বিক্রম নাথের বেঞ্চ এই বিষয়টিই তুলে ধরেছেন। তবে তাঁরা এটিও বলেন, বিশ্বজুড়ে বিনামূল্যে জ্ঞানের ভাণ্ডার হিসাবে এর গুরুত্ব অনস্বীকার্য। কিন্তু একইসঙ্গে মামলা-মোকদ্দমার মতো গুরুতর বিষয়ের ক্ষেত্রে এই ধরনের ওয়েবসাইট থেকে তথ্য সংগ্রহ করার বিষয়ে সতর্ক থাকা উচিত্। মঙ্গলবার এমনটাই বলেন সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ।

কোন মামলায় এই পর্যবেক্ষণ?

সেন্ট্রাল এক্সাইজ ট্যারিফ অ্যাক্ট, ১৯৮৫-এর প্রথম তফসিলের অধীনে আমদানিকৃত 'অল ইন ওয়ান ইন্টিগ্রেটেড ডেস্কটপ কম্পিউটার'-এর সঠিক 'ক্লাসিফিকেশন' সংক্রান্ত একটি মামলার রায়ে এই পর্যবেক্ষণ প্রকাশ করে সর্বোচ্চ আদালত।

শীর্ষ আদালত রায় প্রদানকালে উল্লেখ করে, কাস্টমস কমিশনার(আপিল) নিজেদের সিদ্ধান্তের যুক্তি দিতে গিয়ে উইকিপিডিয়ার মতো অনলাইন সোর্স থেকে প্রাপ্ত তথ্যের উল্লেখ করেছেন।

সময়ের সঙ্গে উইকিপিডিয়ার মতো 'ওপেন' ওয়েবসাইটের প্রতি অন্ধ বিশ্বাস করার প্রবণতা কমছে। এক সময়ে সুপ্রিম কোর্টই উইকিপিডিয়ার সাহায্য নিয়ে মামলা নিষ্পত্তি করেছে, এমন উদাহরণও কিন্তু রয়েছে। যেমন, ২০১০ সালেই এক মামলার রায় প্রদানের সময়ে 'সাধারণ বিবাহ আইন'-এর অর্থ কী, তা ব্যাখা করতে গিয়ে উইকিপিডিয়া থেকে 'রেফারেন্স' নেন বিচারপতি মার্কন্ডেয় কাটজু।

ভুল তথ্য থাকতেই পারে

উইকিপিডিয়ার তথ্যে ভুল, অসংগতি থাকতেই পারে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে এডিটরের অজ্ঞতায় বা স্বেচ্ছায় ভুল তথ্য থাকে। রাজনৈতিক, ব্যবসায়িক, ষড়যন্ত্রমূলক প্রবৃত্তি থেকে উইকিপিডিয়ার এডিট করার বহু উদাহরণ রয়েছে। অনেক স্বৈরাচারী দেশে উইকিপিডিয়া এডিটরদের দিয়ে বলপূর্বক তথ্য ‘সংশোধন’ করানো হয়। ফলে ভুল তথ্য থাকতেই পারে।

এমনই কিছু ইচ্ছাকৃত ভুলের নমুনা(খবরগুলি পড়তে টাচ করুন):

১) নাম ভালো করতে Wikipedia-য় 'অনুপ্রবেশ' সৌদির, ৩২ বছরের জেল অ্যাডমিনকে: রিপোর্ট

২) উইকিপিডিয়ার মানচিত্রে চিনের অংশ আকসাই চিন! আইনি নোটিশ পাঠাল দিল্লি

৩) উইকিপিডিয়ায় লোগো বিকৃতির অভিযোগ, পুলিশের দ্বারস্থ মোহনবাগান

৪) বিয়ের আগেই উইকিপিডিয়া বিয়ে দিয়ে দিল ভিকি-ক্যাটের! হাসির খোরাক পেল সোশ্যাল মিডিয়া

কিন্তু উইকিপিডিয়ায় সবাই স্বেচ্ছায় লেখালিখি করেন কেন?

উইকিপিডিয়া একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। শুরু থেকেই স্বেচ্ছাসেবক কন্ট্রিবিউটার, এডিটর, ইঞ্জিনিয়ারের মাধ্যমে এই সাইট চলে। এর জন্য বিভিন্ন সংস্থা এবং পাঠকের থেকে অনুদান নেয় সংস্থা।

<p>পাঠক, বড় সংস্থার অনুদানেই চলে উইকিপিডিয়া। ছবি: উইকিপিডিয়া</p>

পাঠক, বড় সংস্থার অনুদানেই চলে উইকিপিডিয়া। ছবি: উইকিপিডিয়া

(WikiPedia)

কিন্তু উইকিপিডিয়ার কর্তা কখনই এই ওয়েবসাইটে সাবস্ক্রিপশন বা বিজ্ঞাপন বসাতে দেননি। সেটি করলে আজ উইকিপিডিয়াও ফেসবুক, গুগলের মতো বিশাল অঙ্কের ব্যবসা করতে পারত। তবে সেটা কোনওদিনই লক্ষ্য ছিল না প্রতিষ্ঠাতাদের। বিনামূল্যে সবার নাগালে জ্ঞান পৌঁছে দেওয়াই ছিল মূল্য লক্ষ্য। উইকিপিডিয়ায় প্রায় ২৫০ জন কর্মী কাজ করেন। স্বেচ্ছাসেবকের সংখ্যা প্রায় ২ লক্ষ ৫০ হাজার।

তবে কি উইকিপিডিয়া ব্যবহার করা উচিত্ নয়?

এগুলি জেনে উইকিপিডিয়ার ব্যবহার করা বন্ধ করে দেবেন ভাবছেন? এমনটা করার কোনও প্রয়োজন নেই। সাধারণ প্রয়োজন, জ্ঞানের জন্য উইকিপিডিয়া অবশ্যই দেখবেন। তবে গুরুতর বিষয়, যেমন পড়াশোনা, গবেষণা, আইনি বা আর্থিক প্রয়োজন, রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে উইকিপিডিয়া দেখার পাশাপাশি আরও ২-৩টি প্রথম সারির ওয়েবসাইট থেকে সেই বিষয়ে পড়ুন। এটিকে ‘ক্রস-চেকিং’ বলা হয়। এর মাধ্যমে তথ্যটি একেবারে সঠিক কিনা, সেই বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারবেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন