বাংলা নিউজ > দেখতেই হবে > ঘরে বাইরে > পাকিস্তানে যাওয়ার হলে ১৯৪৭ সালে চলে যেত জম্মু-কাশ্মীর: ফারুক আবদুল্লা

পাকিস্তানে যাওয়ার হলে ১৯৪৭ সালে চলে যেত জম্মু-কাশ্মীর: ফারুক আবদুল্লা

হালে চিনের হস্তক্ষেপ সম্পর্কিত বেঁফাস কথা বলে বিপাকে পড়েছিলেন ফারুক আবদুল্লা। এবার আর সেই ভুল করলেন না। ৩৭০ ধারা বিলুপ্ত হওয়ার পর জম্মুতে আয়োজিত প্রথম সভায় ইতিহাসের প্রসঙ্গ টেনে আনলেন।। কিভাবে তাঁর বাবা ও ন্যাশনাল কনফারেন্সের প্রতিষ্ঠাতা শেখ আবদুল্লা মানুষকে বুঝিয়েছিলেন ভারতে থাকা নিয়ে স্বাধীনতার সময়, সেই প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন তিনি। 

ফারুক আবদুল্লা বলেন যে জম্মু-কাশ্মীরের ওই দিকে চলে যাওয়ার হলে তো ১৯৪৭ সালেই যেতে পারত। কিন্তু তখন শেখ আবদুল্লা সবাইকে বুঝিয়ে বলেন যে এটা আমাদের দিক, ওটা আমাদের নয় বলে তিনি দাবি করেন। তবে তাঁর কথায়, আমরা মহাত্মা গান্ধীর ভারতের অংশ হয়েছিলাম, বিজেপির নয়। ফারুক বলেন যে তাঁর বাবা এমন ভারতের অংশ হয়েছিলেন যেখানে সব ধর্ম সমান সম্মান পেত, গরীব-বড়লোক নির্বিশেষে সকলে একই রকম ব্যবহার পেতেন, মানুষ মানুষকে শ্রদ্ধা করত, কোনও ধর্ম, খাদ্যভাসের ভিত্তিতে ভেদাভেদ করা হত না। ফারুক বলেন যে এখন সবাই তাঁকে দেশদ্রোহী বলছে, কিন্তু তিনি জেনিভায় ভারতের হয়ে লড়েছিলেন, পাশে ছিলেন বাজপেয়ী। কতদিন বিজেপি কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ভোটব্যাঙ্ক হিসেবে ব্যবহার করবে সেই প্রশ্ন করেন তিনি। ফারুক বলেন যে তাঁর ৮৫ বছর বয়স, কিন্তু ৩৭০ ধারা ফের চালু হওয়ার আগে তিনি দেহ রাখবেন না। 

ওমর আবদুল্লা বলেন ৩৭০ ধারা অবলুপ্ত হওয়ার পর আরও একঘরে বোধ করছেন কাশ্মীরের নাগরিকরা। তিনি বলেন অনেক জম্মুর নাগরিকও তাঁকে বলেছেন যে তাঁরা ৩৭০ ধারা অবলুপ্তির বিপক্ষে।