বাড়ি > দেখতেই হবে > ঘরে বাইরে > অন্ধ্রপ্রদেশে নদীর তলা থেকে উদ্ধার হল প্রাচীন শিব মন্দির

অন্ধ্রপ্রদেশে নদীর তলা থেকে উদ্ধার হল প্রাচীন শিব মন্দির

 ওড়িশার পর এবার অন্ধ্রপ্রদেশে। নদীর নীচ থেকে মিলল বহু পুরোনো মন্দিরের অংশবিশেষ। 

অন্ধ্রের চেরজালা মন্ডলে পেনা নদীতে বালির মধ্যে ডুবেছিল একটি সুপ্রাচীন মন্দির। মঙ্গলবার সেটির খোঁজ মেলে। ভগবান নাগেশ্বর (অর্থাত্ শিবের মন্দির) এটি। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দুই তিন প্রজন্ম আগেও লোকে জানত এই মন্দিরের কথা। কিন্তু এর পর নদীর ধারে অবস্থিত মন্দিরটি বালির তলায় চলে যায়। এতদিন পরে উত্সাহী গ্রামবাসীরা টাকা জমিয়ে বালি খনন করেন মন্দিরের খোঁজে। প্রায় এক দিন লেগেছে মন্দিরের চূড়ো অবধি পৌঁছাতে। 

পেরুমাল্লাপড়ু গ্রামের বাসিন্দা বরা প্রসাদ জানিয়েছেন যে দুশো বছর আগে এই শিবমন্দিরটি খুবই জনপ্রিয় ছিল। কিন্তু প্রায় ৭০-৮০ বছর আগে এটি বালির নীচে তলে যায়। গ্রামবাসীরাও ওই অঞ্চল ত্যাগ করেন। ক্রমশ বিস্মৃত হয়ে যায় ওই মন্দিরের কথা। 

তারপর গালিপালা সুদর্শন নামের এক ব্যক্তির উত্সাহে খনন কাজ শুরু হয়। এই মন্দিরটি নতুন করে প্রতিষ্ঠা করতে আগ্রহী স্থানীয়রা। কিন্তু কোথায় তা করা হবে, তা ঠিক হয়নি। শিবের মূর্তিটি এখন কী অবস্থায় আছে, সেটি এখনও অজানা। 

আপাতত নদীর চড়া থেকে পুরো মন্দিরটি উদ্ধার করাই প্রাথমিক পরিকল্পনা। মন্দিরের শুধু ওপরটাই আপাতত দেখা যাচ্ছে। সমস্তটা উদ্ধার করতে কিছুদিন সময় লাগবে। 

স্থানীয়দের মধ্যে কথিত আছে পরশুরাম যে ১০১টি মন্দির স্থাপনা করেছিলেন, তার মধ্যে অন্যতম এটি।