বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > PPE পরে ভবতারিণীর পুজো দেবেন দক্ষিণেশ্বরের সেবায়েতরা

PPE পরে ভবতারিণীর পুজো দেবেন দক্ষিণেশ্বরের সেবায়েতরা

  • পুজো দেওয়াতেও রয়েছে নানা বিধিনিষেধ। পুজোয় ফুল বা সিঁদুর দেওয়া যাবে না বিগ্রহকে। শুধুমাত্র দেওয়া যাবে ফল ও মিষ্টি। 
শনিবার থেকে সর্বসাধারণের জন্য খুলছে দক্ষিণেশ্বরের ভবতারিনীর মন্দির। বুধবার পুলিশ কমিশনারের পর্যবেক্ষণের পর একথা জানিয়েছে মন্দির কর্তৃপক্ষ। কিন্তু মন্দিরে ঢুকতে হবে নিয়ম মেনে। পুজো দিতেও মানতে হবে বিধিনিয়ম। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে PPE পরবেন সেবায়েতরা।  (PTI)
1/5শনিবার থেকে সর্বসাধারণের জন্য খুলছে দক্ষিণেশ্বরের ভবতারিনীর মন্দির। বুধবার পুলিশ কমিশনারের পর্যবেক্ষণের পর একথা জানিয়েছে মন্দির কর্তৃপক্ষ। কিন্তু মন্দিরে ঢুকতে হবে নিয়ম মেনে। পুজো দিতেও মানতে হবে বিধিনিয়ম। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে PPE পরবেন সেবায়েতরা।  (PTI)
মন্দির কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে। প্রায় আড়াই মাস পর খুলছে মন্দির। রোজ সকাল ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত ও বিকেল ৩.৩০ মিনিট থেকে ৬.৩০ মিনিট পর্যন্ত সেখানে পুজো দিতে পারবেন ভক্তরা।  (PTI)
2/5মন্দির কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে। প্রায় আড়াই মাস পর খুলছে মন্দির। রোজ সকাল ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত ও বিকেল ৩.৩০ মিনিট থেকে ৬.৩০ মিনিট পর্যন্ত সেখানে পুজো দিতে পারবেন ভক্তরা।  (PTI)
তিনি জানান, মন্দিরের মধ্যে ভিড় এড়াতে মোতায়েন থাকবেন নিরাপত্তারক্ষীরা। একসঙ্গে ৪০০ জনের বেশি মানুষকে মন্দির চত্বরে ঢুকতে দেওয়া হবে না। মন্দিরে ঢোকার আগে প্রত্যেকের হাত স্যানিটাইজ করতে হবে। হবে থার্মাল স্ক্যানিং। (PTI)
3/5তিনি জানান, মন্দিরের মধ্যে ভিড় এড়াতে মোতায়েন থাকবেন নিরাপত্তারক্ষীরা। একসঙ্গে ৪০০ জনের বেশি মানুষকে মন্দির চত্বরে ঢুকতে দেওয়া হবে না। মন্দিরে ঢোকার আগে প্রত্যেকের হাত স্যানিটাইজ করতে হবে। হবে থার্মাল স্ক্যানিং। (PTI)
পুজো দেওয়াতেও রয়েছে নানা বিধিনিষেধ। পুজোয় ফুল বা সিঁদুর দেওয়া যাবে না বিগ্রহকে। শুধুমাত্র দেওয়া যাবে ফল ও মিষ্টি। তাও সেবায়েতের থেকে অন্তত ৬ ফুট দূরে থাকবে। মন্দিরের তরফে কোনও ফুল, সিঁদুর বা চরণামৃত কাউকে দেওয়া হবে না। মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢুকতে পারবেন না কেউ। ১০ জন ভক্ত একসঙ্গে পুজো দিতে পারবেন।  (AFP)
4/5পুজো দেওয়াতেও রয়েছে নানা বিধিনিষেধ। পুজোয় ফুল বা সিঁদুর দেওয়া যাবে না বিগ্রহকে। শুধুমাত্র দেওয়া যাবে ফল ও মিষ্টি। তাও সেবায়েতের থেকে অন্তত ৬ ফুট দূরে থাকবে। মন্দিরের তরফে কোনও ফুল, সিঁদুর বা চরণামৃত কাউকে দেওয়া হবে না। মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢুকতে পারবেন না কেউ। ১০ জন ভক্ত একসঙ্গে পুজো দিতে পারবেন।  (AFP)
পুজো দেওয়ার পর মন্দিরের ভিতরে অকারণে ঘোরাঘুরি করা যাবে না। সোজা বেরিয়ে যেতে হবে মন্দির চত্বর থেকে। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে PPE পরবেন সেবায়েতরা। সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং মেনে পুজো করবেন তাঁরা।  (PTI)
5/5পুজো দেওয়ার পর মন্দিরের ভিতরে অকারণে ঘোরাঘুরি করা যাবে না। সোজা বেরিয়ে যেতে হবে মন্দির চত্বর থেকে। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে PPE পরবেন সেবায়েতরা। সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং মেনে পুজো করবেন তাঁরা।  (PTI)
অন্য গ্যালারিগুলি