বাড়ি > ময়দান > বড় ম্যাচের টিকিট মূল্য ফেরানো হবে কবে? জানতে চেয়ে ইস্টবেঙ্গলকে চিঠি মোহনবাগানের

যুবভারতীতে আই লিগের প্রথম ডার্বিতে জয় তুলে নিয়েছে মোহনবাগান। সেটি ছিল বাগানের হোম ম্যাচ। ফিরতি ডার্বি নিয়ে নাটক চলে বিস্তর। আইজলকে হারিয়ে মোহনবাগান যে ম্যাচে পয়েন্টের নিরিখে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিশ্চিত করে, ঠিক তার পরের ম্যাচেই ফিরতি ডার্বিতে ইস্টবেঙ্গলের মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল তাঁদের।

১৫ মার্চ ফিরতি ডার্বি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনেই। স্বাভাবিকভাবেই এটি ছিল লাল-হলুদ শিবিরের হোম ম্যাচ। লিগের ফয়সলা হয়ে গেলেও বড় ম্যাচের উত্তেজনায় ভাটা পড়বে, এমনটা ভাবার কোনও কারণ নেই।

ইতিমধ্যে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় সারা দেশে জমায়েত নিষিদ্ধ হওয়ায় ভরা গ্যালারিতে ডার্বি আয়োজন সম্ভব ছিল না। মোহনবাগান চেয়েছিল ফাঁকা যুবভারতীতে বড় ম্যাচ খেলতে। ইস্টবেঙ্গল চাইছিল পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সমর্থকদের মাঝেই ডার্বি আয়োজন করতে। এই নিয়ে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা বৈঠকে দুই প্রধানের কর্তাদের মধ্যে কার্যত টানাপোড়েন চলে। শেষে মোহনবাগান সুর নরম করতে বাধ্য হয়।

পরে সারা দেশে লকডাউন ঘোষিত হয় এবং এআইএফএফ টুর্নামেন্ট মাঝপথেই বাতিল করে মোহনবাগানকে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে দেয়। আই লিগের যে ২৮টি ম্যাচ বাতিল হয়, তার মধ্যে ছিল ফিরতি ডার্বিও। ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় সমর্থকদের অবিলম্বে টিকিটের টাকা ফেরত দেওয়ার দাবি জানায় মোহনবাগান।

বুধবার মোহনবাগানের তরফে চিঠি দিয়ে ইস্টবেঙ্গল শিবিরের কাছে ডার্বির টিকিট মূল্য ফেরত দেওয়ার প্রসঙ্গে আপডেট জানতে চাওয়া হয়। ইস্টবেঙ্গল সিইওকে লেখা চিঠিতে মোহনবাগান জানায়, তাদের বহু সমর্থক বড় ম্যাচের টিকিট কিনেছেন। তাঁরা ক্লাবের কাছে জানতে চেয়েছেন টিকিট মূল্য ফেরানো হবে কবে। তাই ইস্টবেঙ্গল যেন দ্রুত তাদের এই প্রক্রিয়া সম্পর্কে অবহিত করে বাগান শিবিরকে, যাতে তারা নিজেদের সমর্থদের জানাতে পারে সঠিক তথ্য।

বন্ধ করুন