বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > এক ছাদের নীচে বাংলার শাড়ি, ব্র্যান্ডিংয়ের বড় পরিকল্পনার কথা জানালেন মমতা

এক ছাদের নীচে বাংলার শাড়ি, ব্র্যান্ডিংয়ের বড় পরিকল্পনার কথা জানালেন মমতা

বাংলার শাড়ি উপহার দেওয়া হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। সৌজন্যে ফেসবুক, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এই উদ্যোগের মাধ্যমে কার্যত তাঁতিদের পাশে দাঁড়াবে রাজ্য সরকার। বাংলার শাড়িকে আরও বেশি করে সকলের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য বিশেষ উদ্যোগ মুখ্যমন্ত্রীকে।

এবার বাংলার শাড়ির স্টল হবে জেলায় জেলায়। বাংলার জেলায় জেলায় হরেক শাড়ির মেলা। সেই সব শাড়িকে একটি ছাদের নীচে হাজির করার উদ্যোগ নিচ্ছে রাজ্য সরকার। পরিকল্পনায় খোদ মুখ্যমন্ত্রী। নদিয়ার রানাঘাটের প্রশাসনিক সভায় তিনি এনিয়ে নয়া নির্দেশিকাও দিয়েছেন। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, কী কী শাড়ি হয় প্রথমে তা একজায়গায় নথিভুক্তি করুন। মহুয়া মৈত্র, অসীমা পাত্র যারা এটা নিয়ে আগ্রহী তাদের নিয়ে একটি কমিটি তৈরি করুন। ওরা তাঁতের জেলার মানুষ। শাড়িটা ভালো বোঝে। অনেক আইডিয়া দিতে পারবে। ঠিক কেমন হবে এই বাংলার শাড়ির স্টোর?

মুখ্য়মন্ত্রী প্রশাসনিক সভায় জানিয়েছেন,ধনেখালি, শান্তিপুর, ফুলিয়া, মুর্শিদাবাদ সিল্ক সহ বাংলায় যা যা বোনা হয় সেটা নিয়ে বাংলার শাড়ি স্টোর করুন। সেখানে বাড়িতে পরার তাঁতও থাকবে আবার সিল্ক, মসলিন, ঢাকাইও থাকবে। এক ছাদের নীচে বাংলার তৈরি হওয়া সমস্ত শাড়ি পাওয়া যাবে। পরিকল্পনার কথাও জানিয়ে দিলেন মুখ্য়মন্ত্রী।

তবে তন্তুজ বা মঞ্জুষার থেকে এটা একটু আলাদা হবে। এখানে কেবলমাত্র বাংলার শাড়িই পাওয়া যাবে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এই উদ্যোগের মাধ্যমে কার্যত তাঁতিদের পাশে দাঁড়াবে রাজ্য সরকার। বাংলার শাড়িকে আরও বেশি করে সকলের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য বিশেষ উদ্যোগ মুখ্যমন্ত্রীর। কার্যত বাংলার শাড়ির ব্র্যান্ডিং করতে চাইছে সরকার। তা নিয়ে একেবারে বড় পদক্ষেপ। তাঁত শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখার ক্ষেত্রে এটা বড় পদক্ষেপ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

 

বন্ধ করুন