বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কাটমানি পাওয়া যাবে না বলে এতদিন কিসান সম্মান নিধি আটকে রেখেছিলেন মমতা: দিলীপ
দলের রাজ্য দফতরে সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দলের রাজ্য দফতরে সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

কাটমানি পাওয়া যাবে না বলে এতদিন কিসান সম্মান নিধি আটকে রেখেছিলেন মমতা: দিলীপ

  • এদিন টিকাকরণে রাজ্যজুড়ে অব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন দিলীপবাবু। বলেন, মানুষ চার – পাঁচ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

রাজ্যের কৃষকদের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির কড়া সমালোচনা করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। শুক্রবার বিজেপি দফতরে এক সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, কাটমানি পাওয়া যাবে না বলে এতদিন বাংলার কৃষকদের কিসান সম্মান নিধি থেকে বঞ্চিত রেখেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। 

শুক্রবার দিলীপবাবু বলেন, আমি চাইবো রাজ্যের ৭৩ লক্ষ কৃষক যাতে কিসান সম্মান নিধি পায় সেজন্য কেন্দ্রকে তাদের নাম পাঠাক। রাজ্যের কৃষকরা ধানের সহায়ক মূল্য পান না। আলু – পাটের দাম পান না। আমরা চাইবো রাজ্য সরকার সমস্ত কৃষকের নাম কেন্দ্রকে পাঠাবে এবং কেন্দ্রীয় সরকার তাদের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পারবে। 

তিনি বলেন, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী যে অভিযোগ করেছেন তা ভিত্তিহীন। করোনাকালে প্রধানমন্ত্রী মুখ্যমন্ত্রীকে চার বার সাহায্য করতে চেয়ে চিঠি দিয়েছিলেন। সেই চিঠির উত্তর দেননি মুখ্যমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় দলকে যখন সাহায্য করতে পাঠানো হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী তাদের গৃহবন্দি করে রেখেছিলেন। 

এদিন টিকাকরণে রাজ্যজুড়ে অব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন দিলীপবাবু। বলেন, মানুষ চার – পাঁচ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে ফিরে যাচ্ছেন। কেন কোনও নীতি নেই? ভারত সরকার বিশ্বে সব থেকে দ্রুততার সঙ্গে টিকা দিয়েছে। তাই মুখ্যমন্ত্রীর উচিত চিঠি লেখা বন্ধ করে কেন্দ্রকে সহযোগিতা করা।

সঙ্গে দিলীপবাবু দাবি করেন, পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে এখনো ভোট পরবর্তী হিংসা ঘটেছে। তার মধ্যে ৭ হাজার ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে। তবে মোট ঘটনার সংখ্যা ১৫,০০০-এর বেশি। তিনি বলেন, জেলায় জেলায় এখনো ভয়ের পরিবেশ অব্যাহত। পুলিশ অভিযোগ নিচ্ছে না। এমনকী ধর্ষিতারা কলকাতায় এসে হাইকোর্টে মামলা করতে ভয় পাচ্ছেন। বহু মানুষ ওড়িশা, অসমে পালিয়ে গিয়েছেন। আমরা বিভিন্ন জায়গায় শিবির করে ঘরছাড়াদের রেখেছি। তাদের খাবারদাবারের ব্যবস্থা করেছি। 

বন্ধ করুন