বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ঋতুস্রাবের যন্ত্রণা নিয়েই ভারোত্তোলনে রুপো জয়! মীরাবাঈ চানু আসছে বড় পরদায়
মীরাবাঈ চানু।
মীরাবাঈ চানু।

ঋতুস্রাবের যন্ত্রণা নিয়েই ভারোত্তোলনে রুপো জয়! মীরাবাঈ চানু আসছে বড় পরদায়

  • দেশকে আন্তর্জাতিক মঞ্চে সম্মানিত করে ইতিমধ্যেই তিনি সকলের মন জয় করে নিয়েছেন। 

টোকিও অলিম্পিক্সে মহিলাদের ৪৯ কেজি বিভাগে ক্লিন অ্যান্ড জার্ক এবং স্ন্যাচ মিলিয়ে মোট ২০২ কেজি ওজন তুলে রুপো জিতে দেশকে বিশ্ব মঞ্চে গর্বিত করেছিলেন মণিপুরের মেয়ে মীরাবাঈ চানু। দেশে ফিরে পরিবারের সকলের সঙ্গে মাটিতে বসে তাঁর ভাত খাওয়ার ছবিও ভাইরাল হয়েছে ইতিমধ্যেই। আর ‘ঘরের মেয়ে’কে নিয়ে ছবি তৈরির কথা ঘোষণা করল মণিপুরের এক প্রোডাকশন কোম্পানি। 

Seuti Films Production-র চেয়ারম্যান মানোবী এমএম (Manaobi MM) জানিয়েথে, আমরা মীরাবাঈকে নিয়ে একটা ফিচার ফিল্ম তৈরি করার কথা ভাবছি। ওঁর জীবনের নানা তথ্য থাকবে সেখানে। মীরাবাঈয়ের সঙ্গে কনট্র্যাক্টও করে ফেলেছেন ওই প্রোডাকশন কোম্পানি।

টোকিও অলিম্পিকে মীরাবাঈ চানু।
টোকিও অলিম্পিকে মীরাবাঈ চানু।

বছর ছাব্বিশের ইম্ফলের কন্যার মেয়েবেলার গল্প, বেড়ে ওঠা, ট্রেনিং ও টোকিও অলিম্পিক্সে রুপো জয়ের দিনের কঠিন লড়াই দেখানো হবে ছবিতে। সঙ্গে শহরে গিয়ে কী কী কঠিন পরিস্থিতির শিকার তিনি হয়েছিলেন, থাকবে সেসবও। প্রোডাকশন কোম্পানির তরফে দেওয়া প্রেস রিলিজ অনুসারে ইংরেজি, হিন্দি-সহ আরও কিছু ভারতীয় ভাষায় তৈরি হবে ছবিটি। 

মীরাবাঈ-র কোচ এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন প্রতিযোগিতার দিন সকালে তিনি বুঝতে পারেন পিরিয়ডস হয়ে গিয়েছে। পেটে ব্যথাও ছিল। কিন্তু সেসব গ্রাহ্য করেননি একেবারেই। যে গল্প অবাক করেছিলে দেশের অনেক নারীকে। সঙ্গে দিয়েছিল উৎসাহ ও অনুপ্রেরণাও।

মেডেল জয়ের পর টুইটারে পরিবারের সঙ্গে নিজের ছবি শেয়ার করে মীরাবাঈ লিখেছিলেন, '২ বছর পরে পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে পারার অভিজ্ঞতা ভাষায় বর্ণনা করা সম্ভব নয়। আমি আপনাদের সবার কাছে কৃতজ্ঞ, যাঁঁরা আমার ওপর ভরসা রেখেছেন এবং আমাকে সমর্থন করেছেন। ধন্যবাদ এমা (মণিপুরী ভাষায় 'মা') এবং বাবা, আমার জন্য এতকিছু ত্যাগ করার জন্য। তোমাদের আত্মত্যাগই আজ আমাকে এই জায়গায় পৌছে দিয়েছে।'

বন্ধ করুন