বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > ‘নকআউটে অজিদের রেকর্ড অসাধারণ’, তবে গাভাস্কর ফাইনালে কাকে ফেভারিট বলছেন, জানেন?
এ বার চ্যাম্পিয়ন হবে কারা?
এ বার চ্যাম্পিয়ন হবে কারা?

‘নকআউটে অজিদের রেকর্ড অসাধারণ’, তবে গাভাস্কর ফাইনালে কাকে ফেভারিট বলছেন, জানেন?

  • অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড আইসিসি টুর্নামেন্টে মোট ১৮ বার মুখোমুখি হয়েছে। সেখানে অস্ট্রেলিয়াই জিতেছে ১২ বার। আবার আইসিসি টুর্রনামেন্টের ৩১টি নকআউট ম্যাচ খেলে, তার মধ্যে ২০টিতেই অস্ট্রেলিয়া জয় পেয়েছে। এর মধ্যে আবার পাঁচটি ক্রিকেট বিশ্বকাপ এবং দু'টি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল রয়েছে।

আজ যে টিমই ফাইনাল ম্যাচে জয় পাক না কেন, সেই টিমই কিন্তু প্রথম বার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বাদ পাবে। এখনও পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া বা নিউজিল্যান্ড কোনও টিমই বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। অস্ট্রেলিয়া তাও এক বার ফাইনালে উঠেছিল। নিউজিল্যান্ড শেষ চারের গণ্ডিই টপকাতে পারেনি। এই পরিস্থিতি আজ ফাইনালে সুনীল গাভাস্করের বাজি, অস্ট্রেলিয়াই। তাঁর মতে, নকআউট পর্বে অজিদের রেকর্ড অসাধারণ। তাই তিনি বাজি ধরছেন অ্যারন ফিঞ্চের টিমকে নিয়ে।

অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড আইসিসি টুর্নামেন্টে মোট ১৮ বার মুখোমুখি হয়েছে। সেখানে অস্ট্রেলিয়াই জিতেছে ১২ বার। আবার আইসিসি টুর্রনামেন্টের ৩১টি নকআউট ম্যাচ খেলে, তার মধ্যে ২০টিতেই অস্ট্রেলিয়া জয় পেয়েছে। এর মধ্যে আবার পাঁচটি ক্রিকেট বিশ্বকাপ এবং দু'টি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল রয়েছে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী যদি কোনও টিমের এগিয়ে থাকার রেকর্ড থাকে, তবে সেটা মানসিক দিক থেকে কতটা সেই টিমকে সুবিধে দেয়? স্পোর্টস টু-তে সুনীল গাভাস্কর এই প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে বলেন, ‘এটা অবশ্যই মানসিক ভাবে এগিয়ে রাখে। যখন কোনও টিমের হারের চেয়ে বেশি বার জয়ের রেকর্ড থাকে, তখন শুধুমাত্র এটাই মাথায় ঘুরতে থাকে, মাঠের মধ্যে যাই ঘটুক না কেন, পরিস্থিতি ঘুরিয়ে দিতে পারব আমরা। আমি মনে করি, অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা একটা ছন্দ পেয়ে গিয়েছে, তারা একই ভাবে এগোতে চাইবে। নকআউটে, শুধু নিউজিল্যান্ড বলে নয়, বেশির ভাগ দলের বিরুদ্ধেই ওদের অবিশ্বাস্য রেকর্ড রয়েছে। ওরা প্রথম বার এই আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জেতার জন্য মরিয়া হয়ে চেষ্টা চালাবে।’

এর সঙ্গেই গাভাস্কর যোগ করেছেন, ‘ডেভন কনওয়ে যদি ফিট হতেন, তাহলে হয়তো আমি বলতাম ম্যাচটিতে ফিফটি ফিফটি সুযোগ রয়েছে। কিন্তু ডেভন কনওয়ে না থাকায়, একজন নতুন প্লেয়ার ফাইনাল খেলবেন, যিনি কিনা প্রথম ম্যাচের পর আর কোনও ম্যাচ খেলেননি। তিনি হলেন টিম সেফার্ট। নিউজিল্যান্ডের জন্য এই ধাক্কাটা সহজ হবে না। আর আমি যেমন বলেছি, নকআউটে অস্ট্রেলিয়ার অসাধারণ রেকর্ড রয়েছে।’

বন্ধ করুন