বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > Makar Sankranti 2023: মকর সংক্রান্তি ঘিরে নানান রীতি প্রচলিত, শাস্ত্রমতে এর মাহাত্ম্য কী?

Makar Sankranti 2023: মকর সংক্রান্তি ঘিরে নানান রীতি প্রচলিত, শাস্ত্রমতে এর মাহাত্ম্য কী?

মকর সংক্রান্তিতে, সূর্য ধনু রাশি থেকে মকর রাশিতে প্রবেশ করে। 

Makar Sankranti 2023: কেন পালন করা হয় মকর সংক্রান্তি? মকর সংক্রান্তি পালনের পিছনে ধর্মীয় মান্যতা কী, জেনে নিন এখান থেকে।

জ্যোতিষশাস্ত্রে মকর সংক্রান্তির উৎসবের বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। মকর সংক্রান্তিতে, সূর্য ধনু রাশি থেকে মকর রাশিতে প্রবেশ করে।

হিন্দু ধর্মে মকর সংক্রান্তির উৎসবের বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। মকর সংক্রান্তির উৎসব ধর্মীয়, জ্যোতিষশাস্ত্র ও সাংস্কৃতিক দৃষ্টিকোণ থেকে বিশেষ। মকর সংক্রান্তি উত্‍সবটি সূর্যের উপর ভিত্তি করে পঞ্চাঙ্গ গণনার ভিত্তিতে পালিত হয়। সৌর ক্যালেন্ডার অনুসারে, প্রতি বছর ১৪ জানুয়ারী মকর সংক্রান্তি উৎসব পালিত হয়। 

হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুসারে, সূর্য ১৪ জানুয়ারী ২০২৩ তারিখে রাত ৮.২১ টায় মকর রাশিতে প্রবেশ করবে। উদয় তিথি গৃহীত হচ্ছে ১৫ জানুয়ারি। এমন পরিস্থিতিতে, নতুন বছরে ১৫ জানুয়ারী ২০২৩ তারিখে মকর সংক্রান্তি পালিত হবে। 

মকর সংক্রান্তি থেকে আবহাওয়ার পরিবর্তন শুরু হয়। বসন্তের আগমন শুরু হয়। মকর সংক্রান্তির পর দিন বড় হতে থাকে এবং রাত ছোট হতে থাকে। এসব ছাড়াও মকর সংক্রান্তির উৎসবের বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে। আসুন জেনে নিই সারা দেশে মকর সংক্রান্তি নিয়ে কী কী ঐতিহ্য ও বিশ্বাস রয়েছে।

মকর সংক্রান্তি সম্পর্কিত প্রধান ধর্মীয় ও জ্যোতিষশাস্ত্রীয় বিশ্বাস

মকর সংক্রান্তিতে সূর্য দক্ষিণায়ন থেকে উত্তরায়ণে যায়। উত্তরায়ণে সূর্য থাকলে সূর্য দেবতার পূজার গুরুত্ব বেড়ে যায়। এই দিনে পূজা ও দান করার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। বিশ্বাস করা হয় এই দিনে দান করলে এর ফল বহুগুণ হয়।

মকর সংক্রান্তিতে, সূর্য ওঠার সাথে সাথে দেবতার দিন শুরু হয়। শাস্ত্রে সূর্যের দক্ষিণায়নকে দেবতাদের রাত হিসেবে ধরা হয়েছে।

জ্যোতিষশাস্ত্রে, সূর্য এবং শনি উভয়ের মধ্যে শত্রুতার সম্পর্ক রয়েছে। মকর সংক্রান্তিতে, সূর্যদেব তার পুত্র শনির মকর রাশিতে প্রবেশ করেন। সূর্য মকর রাশিতে প্রবেশ করলে সূর্য দেবতার পূজা, দান ও স্নানের গুরুত্ব বেড়ে যায়।

মকর সংক্রান্তিকে শরতের শেষ এবং বসন্তের শুরু বলে মনে করা হয়।

মকর সংক্রান্তি থেকে নতুন ফসল প্রস্তুত করা হয়। ফসল তোলার পর এই উৎসব হয় বলে মনে করা হয়।

দেশের বিভিন্ন রাজ্যে নানা নামে পালিত হয় মকর সংক্রান্তি। মকর সংক্রান্তি উত্তর প্রদেশে খিচড়ি নামে পরিচিত। মকর সংক্রান্তি দক্ষিণ ভারতে পোঙ্গল হিসাবে এবং গুজরাটে উত্তরায়ণ হিসাবে মকর সংক্রান্তি পালিত হয়।

পাঞ্জাবে, মকর সংক্রান্তি বিশেষ আড়ম্বর ও প্রদর্শনীর সাথে লোহরি হিসাবে পালিত হয়। এই দিন সন্ধ্যায় লোহরি জ্বালানো হয় যাতে গুড়, ভুট্টা এবং তিল ভোগ হিসাবে দেওয়া হয়।

আসামে, মকর সংক্রান্তি উৎসব মাঘ বিহু এবং ভোগালী বিহু হিসাবে পালিত হয়।

মকর সংক্রান্তিতে সূর্য দেবতার উত্তরায়ণের পরই ভীষ্ম পিতামহ তাঁর জীবন উৎসর্গ করেছিলেন।

মকর সংক্রান্তিতে পবিত্র নদীতে স্নানের প্রথা রয়েছে। এই উৎসবে বিপুল সংখ্যক মানুষ গঙ্গায় স্নান করেন এবং গঙ্গাসাগর ও প্রয়াগে স্নান করেন।

ধর্মীয় বিশ্বাস অনুসারে, যে ব্যক্তি মকর সংক্রান্তিতে দেহ উৎসর্গ করেন তিনি মোক্ষ লাভ করেন।

বন্ধ করুন