বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ছাত্রীকে ধরে টানাটানি! জামাকাপড় ছিঁড়ে কুপ্রস্তাব, প্রাথমিক শিক্ষককে গণধোলাই
তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ প্রাথমিক শিক্ষকের বিরুদ্ধে উঠেছে। প্রতীকী ছবি।

ছাত্রীকে ধরে টানাটানি! জামাকাপড় ছিঁড়ে কুপ্রস্তাব, প্রাথমিক শিক্ষককে গণধোলাই

  • ভয়াবহ ঘটনা। প্রাথমিক শিক্ষকের কাছেও তবে সুরক্ষিত নয় ছাত্রী? নতুন করে প্রশ্ন উঠছে বাঁকুড়ার ঘটনায়।

প্রাথমিকে যেন শনির দশা। এবার তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করার অভিযোগে এক প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষককে গণপিটুনি দিলেন অভিভাবকরা।বাঁকুড়ার রঘুনাথপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঘটনা। অভিভাবকদের প্রশ্ন তবে কি শিক্ষকদের কাছেও সুরক্ষিত নয় ছাত্রীরা? ইতিমধ্যেই পুলিশ ওই অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করেছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই নাবালিকার বাড়ি কোতুলপুরের ডিঙ্গেররন এলাকায়। বাঁকুড়ার রঘুনাথপুর এলাকায় একটি প্রাথমিক বিদ্য়ালয়ে সে তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ে। ওই ছাত্রী মঙ্গলবার মিড ডে মিলের সামগ্রী নিতে স্কুলে গিয়েছিল। তখন মুরারি মোহন মণ্ডল নামে ওই শিক্ষক ছাত্রীটিকে দেখে ফাঁকা স্কুলে নানা ইঙ্গিত করেন বলে অভিযোগ। এমনকী তাকে কু প্রস্তাব দিয়ে পাশে ডেকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ও শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। তার জামা কাপড়ও টেনে ছিঁড়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়।

এরপরই বাড়িতে এসে কান্নায় ভেঙে পড়ে ওই ছাত্রী। এনিয়ে পরিবারের লোকজন তাকে জিজ্ঞাসা করতেই সে গোটা ব্যাপারটি খুলে বলে। স্কুল ফাঁকা থাকার সুযোগে তৃতীয় শ্রেণির ওই ছাত্রীর উপরেই লালসা মেটাতে চেয়েছিল শিক্ষক, অভিযোগ এমনটাই। বুধবার এনিয়ে স্কুলে গিয়ে প্রতিবাদ জানান অভিভাবকরা। এরপরই শুরু হয় গণপিটুনি। বেধড়ক মারে অসুস্থ হয়ে পড়ে শিক্ষক।

আপাতত স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে শিক্ষককে। পুলিশ এনিয়ে খোঁজখবর শুরু করেছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন