বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রণক্ষেত্র কাঁথি, এলাকায় গুলি চলেছে বলে অভিযোগ
তুমুল অশান্তি বাধল তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে।। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
তুমুল অশান্তি বাধল তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে।। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)

তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রণক্ষেত্র কাঁথি, এলাকায় গুলি চলেছে বলে অভিযোগ

  • এবার কালী পুজো করা নিয়ে তুমুল অশান্তি বাধল তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে।

রাজ্যের চার বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে বিপুল জয় পাওয়ার পর তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, সবাই সংযত থাকবেন। কেউ কোনও উচ্ছ্বাস–উন্মাদনা দেখাবেন না। কিন্তু তারপরই কাঁথি থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের খবর প্রকাশ্যে এলো। এবার কালী পুজো করা নিয়ে তুমুল অশান্তি বাধল তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে। তাতেই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। এক রাউন্ড গুলি চলেছে বলে সূত্রের খবর।

স্থানীয় সূত্রে খবর, কাঁথির দেশপ্রাণ ব্লকের পেটুয়াঘাট মৎস্য বন্দরে কালী পুজোর অনুমতি কে পাবে তা নিয়ে তুমুল অশান্তি হয় তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে। এমনকী এই দেশপ্রাণ ব্লকের সহ–সভাপতি তরুণ জানা ও গিরি অনুগামীদের মধ্যে প্রকাশ্যে মারপিট হয়। রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গোটা এলাকা। তৃণমূল কংগ্রেসের অবশ্য দাবি, বিজেপি আশ্রিত কিছু দুষ্কৃতী এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১ নভেম্বর তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে তুলকালাম হয়ে উঠেছিল নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন। তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে চরমে ওঠে অশান্তি। তার জেরে ভাঙচুর করা হয় স্টেশন। ভাঙচুর করা হয় গাড়ি–মোটরবাইক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে লাঠিচার্জ করতে হয়। তবে এক পুলিশকর্মীও আহত হয়েছিলেন।

বন্ধ করুন