বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতা পুলিশের তথ্যে বাংলাদেশে গ্রেফতার ভারতীয় আল–কায়েদার নেতা-রিপোর্ট

কলকাতা পুলিশের তথ্যে বাংলাদেশে গ্রেফতার ভারতীয় আল–কায়েদার নেতা-রিপোর্ট

ধৃত আল-কায়েদার শীর্ষ নেতা। (প্রতীকী ছবি)

দীর্ঘদিন ধরেই পালিয়ে বেড়াচ্ছিল ওই জঙ্গি। কোচবিহার থেকে পালিয়ে প্রথমে কলকাতায় এসে গা ঢাকা দিয়েছিল। পরে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগর ও মথুরাপুরে গা ঢাকা দেয়। সেখানে হানা দেয় কলকাতা পুলিশ। শেষে পুলিশের তাড়া খেয়ে ওই জঙ্গি বাংলাদেশে পালিয়ে যায়। 

ভারতীয় আল–কায়েদার শীর্ষ নেতা তথা দেশের মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি ইকরামুল হক ওরফে আবু তালহাকে দীর্ঘদিন ধরেই গ্রেফতারের চেষ্টা করছিল পুলিশ। মাস খানেক আগেই চোরাপথে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে গা ঢাকা দিয়েছিল ওই জঙ্গি। তবে শেষ রক্ষা হল না। কলকাতা পুলিশের এসটিএফের কাছ থেকে তথ্য পেয়ে ওই জঙ্গিকে গ্রেফতার করল বাংলাদেশ পুলিশ।

আরও পড়ুন: মৃত্যুর ৪ বছর পর UP থেকে উঠে আসা জঙ্গি নেতার ভিডিয়ো প্রকাশ্যে! নেপথ্যে আলকায়দা

লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরেই পালিয়ে বেড়াচ্ছিল ওই জঙ্গি। কোচবিহার থেকে পালিয়ে প্রথমে কলকাতায় এসে গা ঢাকা দিয়েছিল। পরে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগর ও মথুরাপুরে গা ঢাকা দেয়। সেখানে হানা দেয় কলকাতা পুলিশ। শেষে পুলিশের তাড়া খেয়ে ওই জঙ্গি বাংলাদেশে পালিয়ে যায়। তবে বাংলাদেশে পালিয়ে গেলেও ওই জঙ্গির সন্ধান বন্ধ করেনি কলকাতা পুলিশের এসটিএফ। তদন্তকারীরা জানতে পারেন, ঢাকার সবুজবাগের কোনও একটি জায়গায় গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে ওই জঙ্গি। টাস্ক ফোর্সের কাছ থেকে সেই তথ্য পেয়ে সেখানে হানা দিয়ে বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থা ওই জঙ্গিকে গ্রেফতার করে। উল্লেখ্য, কলকাতা এবং বাংলাদেশ ছাড়াও মধ্যপ্রদেশ, গুজরাট, বিহার, অসম, দিল্লি, ঝাড়খণ্ড সহ বিভিন্ন রাজ্যে নেটওয়ার্ক তৈরি করেছিল আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আল কায়েদা ইন ইন্ডিয়ান সাব কন্টিনেন্টের এই শীর্ষ নেতা। তার উদ্যোগে বিভিন্ন রাজ্যে আল–কায়েদার স্লিপার সেল তৈরি হয়েছিল বলে জানতে পারে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, এই জঙ্গি আদতে বাংলাদেশের ময়মনসিংহের বাসিন্দা। ঢাকায় পড়াশোনার শেষ করে ২০১৮ সালে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে আসে। সেখানে আসার পরে উত্তরপ্রদেশে জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যোগ দেয়। এর পরে শুরু করে জঙ্গি কার্যকলাপ। পুলিশের নজরে আসতেই সেখান থেকে কোচবিহারে পালিয়ে যায় ওই জঙ্গি নেতা। পরে কলকাতায় এবং সেখান থেকে জয়নগর ও মথুরাপুরে এসে ডেরা তৈরি করে। সেখান থেকেই এ রাজ্য সহ ভিন রাজ্যে জঙ্গি নিয়োগ শুরু করে ধৃত জঙ্গি নেতা। পুলিশ জানতে পেরেছে, অনলাইনে জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দিত ধৃত তালহা।

গতবছর মধ্যপ্রদেশের ভোপাল থেকে বাংলাদেশি সহ আল–কায়েদার ৮ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এছাড়া গুজরাট থেকে ৪ জনকে গ্রেফতার করে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করতেই আবু তালহার নাম জানতে পারে পুলিশ। তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, দেশের বিভিন্ন জায়গায় ডেরা তৈরি করেছিল এই জঙ্গি নেতা। কলকাতা পুলিশের এসটিএফ তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করতেই কয়েক মাস আগে সস্ত্রীক সন্তানকে নিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে যায় ওই জঙ্গি নেতা। এর পরে ঢাকার গোয়েন্দা সংস্থা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের সঙ্গে যোগাযোগ করেন এসটিফের গোয়েন্দারা। তাদের কাছ থেকে তথ্য পেয়ে আবু তালহাকে গ্রেফতার করে ঢাকার গোয়েন্দা সংস্থা।

বন্ধ করুন