বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ভবানীপুরে জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী বিজেপি
সাংবাদিক বৈঠকে শমীক ভট্টাচার্য। ফাইল ছবি
সাংবাদিক বৈঠকে শমীক ভট্টাচার্য। ফাইল ছবি

ভবানীপুরে জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী বিজেপি

  • এদিন কমিশনের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন শমীকবাবু। তিনি বলেন, ‘কোথাও ভুয়ো ভোটার ধরা পড়ল। কোথাও পালাল। দিনভর রাজ্যের তিনজন মন্ত্রী ভবানীপুরে দাপিয়ে বেড়ালেন। কমিশন কিছু বলল না।

ভোটদানের হারকে হাতিয়ার করে ভবানীপুর বিধানসভা উপ-নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে তারা আত্মবিশ্বাসী বলে দাবি করল বিজেপি। বৃহস্পতিবার বিকেলে এক সাংবাদিক বৈঠকে এই দাবি করেন বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, ‘ভোটদানের হার প্রমাণ করেছে কে মুখ্যমন্ত্রী রইল তা নিয়ে ভবানীপুরের মাথাব্যাথা নেই।’

বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ৫৩.৩২ শতাংশ। এর পর সাংবাদিক বৈঠক করে শমীকবাবু বলেন, ‘ভবানীপুরে ভোটদানের হারে প্রমাণিত কে মুখ্যমন্ত্রী রইল তাতে সেখানকার মানুষের মাথাব্যাথা নেই। যে উচ্চতায় এই নির্বাচনকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, ভবানীপুরের মানুষ বুঝিয়ে দিয়েছেন তাঁরা এব্যাপারে আগ্রহী নন।’

এদিন কমিশনের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন শমীকবাবু। তিনি বলেন, ‘কোথাও ভুয়ো ভোটার ধরা পড়ল। কোথাও পালাল। দিনভর রাজ্যের তিনজন মন্ত্রী ভবানীপুরে দাপিয়ে বেড়ালেন। কমিশন কিছু বলল না। এটা আশ্চর্যজনক।’ শমীকবাবু বলেন, নন্দীগ্রামে জিতেছি, ভবানীপুরেও জিতবো।

বৃহস্পতিবার ছিল ভবানীপুর বিধানসভা উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ। এই নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী পদে আসীন থাকতে গেলে এই নির্বাচনে জিততেই হবে মমতাকে। এদিন দিনভর ভবানীপুরের বিভিন্ন জায়গা থেকে নানা রকম বেনিয়মের খবর মেলে। দিনের শেষে ভবানীপুর থানার সামনে বিক্ষোভে বসতে দেখা যায় বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালকে।

 

বন্ধ করুন