বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Gold recover: দক্ষিণ দমদম থেকে উদ্ধার ৪.৯ কোটি টাকার সোনা! কারা জড়িত? তদন্তে শুল্ক দফতর
উদ্ধার হওয়া সোনা। ছবি সৌজন্যে শুল্ক দফতর।

Gold recover: দক্ষিণ দমদম থেকে উদ্ধার ৪.৯ কোটি টাকার সোনা! কারা জড়িত? তদন্তে শুল্ক দফতর

  • এই ঘটনার সঙ্গে বড় কোনও পাচার চক্র জড়িয়ে থাকতে পারে। একই সঙ্গে এদিন ওই দোকান থেকে যে সোনা উদ্ধার হয়েছে তার মধ্যে বিদেশি কয়েনও রয়েছে। সেক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক পাচার চক্র জড়িত রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখছেন শুল্ক দফতরের আধিকারিকরা।

শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতিতে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হওয়া টাকা নিয়ে এখন চর্চা তুঙ্গে। এরই মধ্যে দক্ষিণ দমদমের একটি সোনার দোকানে হানা দিয়ে প্রায় পাঁচ কোটি টাকা মূল্যের সোনা উদ্ধার করল শুল্ক দফতর। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গতকাল শুল্ক দফতরের আধিকারিকরা ওই দোকানে হানা দিয়ে সোনা উদ্ধার করেছে।

শুল্ক দফতর সুত্রে জানা গিয়েছে, উদ্ধার হওয়া সোনার পরিমাণ ৯.৮৬৫ কেজি। আধিকারিকরা জানাচ্ছেন, এই পরিমাণ সোনার বাজার দর ৪.৯ কোটি টাকা। যে সমস্ত সেনা উদ্ধার হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে সোনার বাট, সোনার বিস্কুট, সোনার কয়েন প্রভৃতি। শুল্ক দফতরের অধিকারীদের অনুমান, পাচারকারীদের কাছ থেকে এই সমস্ত সোনা কেনা হয়েছিল। যদিও এই ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করেনি শুল্ক দফতর। তবে আধিকারিকদের অনুমান, এর সঙ্গে পাচারকারীদের যোগ থাকতে পারে।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই বড় বাজারে একটি দোকান থেকে প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা মূল্যের সোনা উদ্ধার করেছিলেন শুল্ক দফতরের আধিকারিকরা। সেই ঘটনার সঙ্গে পাচারকারীরা জড়িত বলে মনে করছেন আধিকারিকরা তবে এদিনের ঘটনায় কোথা থেকে সোনা নিয়ে আসা হয়েছিল? কাদের কাছ থেকে এই সোনা কেনা হয়েছিল? তা নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে শুল্ক দফতর। আধিকারিকদের অনুমান, এই ঘটনার সঙ্গে বড় কোনও পাচার চক্র জড়িয়ে থাকতে পারে। একই সঙ্গে এদিন ওই দোকান থেকে যে সোনা উদ্ধার হয়েছে তার মধ্যে বিদেশি কয়েনও রয়েছে। সেক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক পাচার চক্র জড়িত রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখছেন শুল্ক দফতরের আধিকারিকরা।

বন্ধ করুন