বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Measles Vaccination: আগামী সপ্তাহ থেকে দেওয়া হবে হাম–রুবেলার টিকা, প্রস্তুত শহরের স্কুলগুলি

Measles Vaccination: আগামী সপ্তাহ থেকে দেওয়া হবে হাম–রুবেলার টিকা, প্রস্তুত শহরের স্কুলগুলি

হামের টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হবে আগামী সপ্তাহ থেকে। প্রতীকী ছবি

টিকাকরণ চলার সময় স্কুলের পঠনপাঠনে কোনও সমস্যা হবে না বলেই জানা গিয়েছে। স্কুলগুলিতে সে ক্ষেত্রে পঠনপাঠন এবং টিকাকরণ দুটোই একসঙ্গে চলবে। এ বিষয়ে যোধপুর পার্ক বয়েজ স্কুলের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতিষেধক প্রদান এবং পঠনপাঠন একসঙ্গে চলবে। পাশাপাশি, অন্যান্য স্কুলেও টিকাকরণ এবং পঠনপাঠন একসঙ্গেই চলবে। 

দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে হাম, রুবেলা এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গে আগামী ৯ জানুয়ারি থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত রাজ্য জুড়ে চলবে হাম–রুবেলা টিকাকরণ কর্মসূচি। কলকাতায় পুরসভার তরফে এই টিকাকরণ কর্মসূচি চালানো হবে। শহরের সরকারি এবং বেসরকারি স্কুলগুলিতে এই প্রতিষেধক দেওয়া হবে মূলত ১৫ বছর বা তার কমবয়সি পড়ুয়াদের। এই মর্মে প্রস্তুত স্কুলগুলি।

প্রথমের দিকে টিকাকরণ নিয়ে অনেক স্কুলই আপত্তির কথা জানিয়েছিল। তবে বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে পড়ুয়াদের টিকাকরণের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে মনে করছে অধিকাংশ স্কুল কর্তৃপক্ষ। টিকাকরণ চলার সময় স্কুলের পঠনপাঠনে কোনও সমস্যা হবে না বলেই জানা গিয়েছে। স্কুলগুলিতে সে ক্ষেত্রে পঠনপাঠন এবং টিকাকরণ দুটোই একসঙ্গে চলবে। এ বিষয়ে যোধপুর পার্ক বয়েজ স্কুলের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতিষেধক প্রদান এবং পঠনপাঠন একসঙ্গে চলবে। পাশাপাশি, বেলতলা গার্লস হাইস্কুল, যাদবপুর বিদ্যাপীঠ, মিত্র ইনস্টিটিউট প্রভৃতি স্কুলে টিকাকরণ এবং পঠনপাঠন একসঙ্গেই চলবে। বেলতলা গার্লস হাইস্কুলে প্রাক প্রাথমিক থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত প্রায় ১২০০–এর মতো পড়ুয়া রয়েছে। এই সমস্ত পড়ুয়াদের ৯ জানুয়ারি থেকে ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রতিষেদক দেওয়া হবে। আবার মিত্র ইনস্টিটিউট, যোধপুর পার্ক বয়েজ স্কুলেও ৯ থেকে ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত টিকা দেওয়া হবে। তবে যাদবপুর বিদ্যাপীঠে চলতি মাসের শেষের দিকে দেওয়া হবে টিকা।

এদিকে, মহানগরে স্কুলগুলিতে টিকা দেওয়া হলেও হাওড়ায় আবার সরকারি হাসপাতাল এবং স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এই প্রতিষেধক দেওয়া হবে। রাজ্যের অন্যান্য জেলাগুলিতেও অধিকাংশ ক্ষেত্রে এরকমভাবে হাসপাতাল এবং স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এই টিকা দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। প্রসঙ্গত, এই প্রতিষেধককে নিরাপদক বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এমনকী যারা আগে এই প্রতিষেধক নিয়েছেন তারা পুনরায় এই প্রতিষেধক নিতে পারবেন বলে চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন।

বন্ধ করুন