বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আরও ইলিশ পাঠানো হোক, দুর্গাপুজোর আগেই বাংলাদেশের কাছে আর্জি এপার বাংলার
আরও ইলিশ পাঠানো হোক, দুর্গাপুজোর আগেই বাংলাদেশের কাছে আর্জি এপার বাংলার (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)
আরও ইলিশ পাঠানো হোক, দুর্গাপুজোর আগেই বাংলাদেশের কাছে আর্জি এপার বাংলার (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)

আরও ইলিশ পাঠানো হোক, দুর্গাপুজোর আগেই বাংলাদেশের কাছে আর্জি এপার বাংলার

গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ অক্টোবরের মধ্যে এপার বাংলায় প্রতিদিন ২০ থেকে ২৪৬ মেট্রিক টন ইলিশ এসেছে।

বাংলাদেশের কাছে ইলিশ পাঠাতে আর্জি জানালেন পশ্চিমবঙ্গের মৎস্য কারবারিরা। তবে এখনও এই বিষয়ে কোনও নিশ্চয়তা মেলেনি। বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী মুনশি টিপু দুবাইয়ে রয়েছেন। মন্ত্রী ফিরলে এই বিষয়ে সমাধানসূত্র বের হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ অক্টোবরের মধ্যে এপার বাংলায় প্রতিদিন ২০ থেকে ২৪৬ মেট্রিক টন ইলিশ এসেছে। ইলিশ কারবারিদের মতে, ইলিশ যেহেতু পচনশীল দ্রব্য, তাই মাছ খুব বেশি পরিমাণে ঢুকলেই মুশকিল। সেক্ষেত্রে এপার বাংলায় ৩০ থেকে ৫০ মেট্রিক টন পদ্মার ইলিশ ঢুকলেই চাহিদা মিটে যাবে। বাংলাদেশে আগামী ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ ধরা সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। যেহেতু এই সময় ইলিশের প্রজননের সময়, তাই ইলিশের উৎপাদন বাড়াতে বাংলাদেশ প্রশাসন ইলিশ ধরা বন্ধ রয়েছে। ফের যখন ইলিশ ধরা শুরু হবে, তখন যাতে এপার বাংলাতেও পদ্মার ইলিশ এসে পৌঁছায়, তাই এবার সেই আর্জিই জানাল ফিশ ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সচিব সৈয়দ আনোয়ার মাকসুদ। এই প্রসঙ্গে হাওড়ার পাইকারি বাজারের এক ব্যবসায়ী জানান, পুজোর আগেই ঢাকার পাঠানো ইলিশ শেষ হয়ে যাবে। তবে পুজোর সময়ে বাঙালির পাতে পদ্মার ইলিশ আর নাও জুটতে পারে।

উল্লেখ্য, দুর্গাপুজো সময়ে এপার বাংলায় ইলিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় হাসিনা সরকার। এরইমধ্যে এক হাজার ৮৫ মেট্রিক টন ইলিশ এসে এসেছে। বাংলাদেশের তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল ৪ হাজার ৬০০ মেট্রিক টন মাছ এসে পৌঁছোবে। এপার বাংলায় বাঙালির পাতে যাতে শেষপর্যন্ত স্বাদের ইলিশ ঠিকমতো এসে পৌঁছায়, এবার সেই চেষ্টাই করছেন মৎস্য কারবারিরা।

বারিরা।

বন্ধ করুন