বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > যৌথ উদ্যোগে ডাকটিকিট প্রকাশ অনুষ্ঠান বাতিলের দায় ভারতের উপরেই চাপাল চিন
ভারতের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশের পরিকল্পনা বাতিল করেছে চিন।
ভারতের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশের পরিকল্পনা বাতিল করেছে চিন।

যৌথ উদ্যোগে ডাকটিকিট প্রকাশ অনুষ্ঠান বাতিলের দায় ভারতের উপরেই চাপাল চিন

  • বেজিংয়ের দাবি, অনুষ্ঠান আয়োজনের বিষয়ে নয়াদিল্লি কিছু জানায়নি বলেই ভারতের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশের পরিকল্পনা বাতিল করা হয়েছে।

নির্ধারিত সময়ে অনুষ্ঠান আয়োজনের বিষয়ে নয়াদিল্লি কিছু জানায়নি বলেই ভারতের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশের পরিকল্পনা বাতিল করা হয়েছে। বুধবার এমনই দাবি করেছে চিন। 

ভারত-চিন কূটনৈতিক সম্পর্কের ৭০তম বার্ষিকী স্মরণে যৌথ উদ্যোগে একটি বিশেষ ডাকটিকিট প্রকাশ করার প্রস্তাবে রাজি হয়েছিল দুই প্রতিবেশী দেশ। মঙ্গলবারের অনুষ্ঠান বাতিল হওয়ার জেরে গত ৮ মাস যাবৎ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ভারত-চিন সীমান্ত বিরোধ ফের আলোচনার শীর্ষে স্থান পেল।

এই প্রসঙ্গে নয়াদিল্লির চিনা দূতাবাসের মুখপাত্র জি রং টুইট করে জানিয়েছেন, ‘চিনের জাতীয় পোস্ট ব্যুরো সমস্ত নিয়মাবলী মেনেই আগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল।’ তবে, এ বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া জানায়নি ভারত সরকার।

জানা গিয়েছে, কূটনৈতিক সম্পর্কের ৭০তম বার্ষিকী পালনে মোট ৭০টি অনুষ্ঠানের যৌথ পরিকল্পনা করেছিল চিন ও ভারত সরকার। কিন্তু বর্তমান কোভিড অতিমারী পরিস্থিতিতে তার একটিও আয়োজন করা যায়নি। উপরন্তু সীমান্ত বিরোধের জেরে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক যে তলানিতে এসে ঠেকেছে, তাতে অদূর ভবিষ্যতেও এমন উদ্যোগের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। 

গত মঙ্গলবার চিনের জাতীয় সংবাদমাধ্যম সে দেশেরডাক পরিষেবা বিভাগের বিজ্ঞপ্তি উদ্ধৃত করে জানায়, ‘২০২০ সালের স্পেশ্যাল স্ট্যাম্প ইস্যুর যৌথ আনুষ্ঠানিক প্রকাশের যে পরিকল্পনা হয়েছিল ভারত ও চিনের মধ্যে, তা বাতিল করা হল।’

উল্লেখ্য, ডাকটিকিট প্রকাশ-সহ অন্যান্য অনুষ্ঠানের বিষয়ে দুই দেশের সরকার রাজি হয়েছিল ২০১৯ সালে চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর চেন্নাই বৈঠকের আলোচনার ভিত্তিতে।

বন্ধ করুন