বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ফের বিয়ে না করা পর্যন্ত ভরণপোষণের দাবি করতে পারেন তালাকপ্রাপ্ত মুসলিম মহিলারা
প্রতীকী ছবি: টুইটার (Twitter)

ফের বিয়ে না করা পর্যন্ত ভরণপোষণের দাবি করতে পারেন তালাকপ্রাপ্ত মুসলিম মহিলারা

  • ইসলামী আইনে, একজন তালাকপ্রাপ্ত মহিলাকে পুনরায় বিয়ে করার আগে প্রায় ৩ মাস 'ইদ্দত' পর্ব অপেক্ষা করতে হয়।

ফের বিয়ে না করা পর্যন্ত ভরণপোষণের দাবি করা যাবে। তালাকপ্রাপ্ত মুসলিম মহিলাদের অধিকারের বিষয়ে এমনটাই বলল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। 'ইদ্দত' মেয়াদ শেষ হওয়ার পর, তালাকপ্রাপ্ত মহিলারা ফৌজদারি কার্যবিধির অধীনে, তাঁর স্বামীর কাছ থেকে ভরণপোষণ দাবি করার অধিকারী।

ইসলামী আইনে, একজন তালাকপ্রাপ্ত মহিলাকে পুনরায় বিয়ে করার আগে প্রায় ৩ মাস 'ইদ্দত' পর্ব অপেক্ষা করতে হয়।

এলাহাবাদ হাইকোর্টের লখনউ বেঞ্চ যোগ করেছে যে, CrPC-র ১২৫ নম্বর ধারা এই আইনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। তাই এর সুবিধা তালাকপ্রাপ্ত মুসলিম মহিলাদের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। বিচারপতি কে এস পাওয়ারের একটি বেঞ্চ সোমবার এক মুসলিম মহিলার করা রিভিশন পিটিশনের অনুমতি দিয়ে এই আদেশ দিয়েছে।

বেঞ্চ জানিয়েছে, উক্ত মুসলিম মহিলাকে ট্রায়াল কোর্টে ভরণপোষণের জন্য আবেদনের তারিখ থেকে রক্ষণাবেক্ষণের টাকা দেওয়া হবে।

এক মুসলিম মহিলা নিজের এবং তাঁর দুই নাবালক সন্তানের ভরণপোষণ চেয়ে ট্রায়াল কোর্টে গিয়েছিলেন। ট্রায়াল কোর্ট ২৩ জানুয়ারী, ২০০৭-এ তাঁদের রক্ষণাবেক্ষণের আদেশ দিয়েছিল।

মহিলার স্বামী ট্রায়াল কোর্টের আদেশকে চ্যালেঞ্জ করে অতিরিক্ত দায়রা জজ, প্রতাপগড়ের কাছে রিভিশন পিটিশন দাখিল করে। এএসজে ১১ এপ্রিল, ২০০৮-এ ট্রায়াল কোর্টের আদেশ বাতিল করে। নির্দেশে বলা হয়, যেহেতু স্বামী এবং স্ত্রী উভয়েই মুসলিম, তাই তাঁদের বিরোধের ক্ষেত্রে মুসলিম মহিলা (তালাকের অধিকার সুরক্ষা) আইন, ১৯৮৬ প্রযোজ্য। সেই অনুযায়ী তিনি CrPC-র ১২৫ নম্বর ধারার অধীনে রক্ষণাবেক্ষণ পাওয়ার অধিকারী ছিলেন না।

সেটি চ্যালেঞ্জ করে ওই মহিলা ২০০৮ সালে হাইকোর্টে যান। তাঁর আবেদনের অনুমতি দিয়ে, হাইকোর্ট পর্যবেক্ষণ করে, 'ট্রায়াল কোর্ট যে আদেশ দিয়েছিল তাতে কোনও বেনিয়ম ছিল না। CrPC-র ১২৫ ধারারই অধীনে স্ত্রী এবং তাঁর নাবালক সন্তানরা ভরণপোষণ পাওয়ার যোগ্য।'

বন্ধ করুন