বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > চাপের মুখে ভারত বায়োটেক, সেরামকে ভ্যাকসিনের দাম কমাতে বলল কেন্দ্র
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই

চাপের মুখে ভারত বায়োটেক, সেরামকে ভ্যাকসিনের দাম কমাতে বলল কেন্দ্র

  • ভারত বায়োটেক, সেরাম ইনস্টিটিউটকে করোনা টিকার দাম কমাতে বলল কেন্দ্র।

ভ্যাকসিনের দাম নিয়ে জোর তরজা চলছিল বেশ কয়েকদিন ধরেই। কেন্দ্র থেকে কেন বেশি টাকা দিয়ে রাজ্যগুলিকে টিকা কিনতে হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল বিরোধী দলগুলি। এই আবহে অতিমারীর মাঝএই শুরু হয়েছিল রাজনৈতিক তরজা। এই পরিস্থিতিতে এবার ভারত বায়োটেক, সেরাম ইনস্টিটিউটকে করোনা টিকার দাম কমাতে বলল কেন্দ্র। এমনই জানা গিয়েছে সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে।

দেশের ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ভ্যাকসিনের নয়া পর্যায়ের সূচনার ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্র জানিয়ে দেয়, ১ মে থেকে ১৮ বছর ও তার বেশি বয়সীদের ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হবে। পাশাপাশি জানানো হয় যে, এবার থেকে খোলা বাজারেই মিলবে ভ্যাকসিন।

এরপরই ভারতে ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী সংস্থা সেরাম ইনস্টিটউট জানায় রাজ্য সরকার আর প্রাইভেট হাসপাতালগুলি সরাসরি তাদের থেকে ভ্যাকসিন কিনতে পারবে যথাক্রমে ৪০০ ও ৬০০ টাকা খরচ করে। আর ভারত বায়োটেক জানায়, রাজ্য সরকার আর প্রাইভেট হাসপাতালগুলি সরাসরি তাদের থেকে ভ্যাকসিন কিনতে পারবে যথাক্রমে ৬০০ ও ১২০০ টাকায়।

কিন্তু এরই মাঝে কেন্দ্র জানায় তারা দু'টি সংস্থা থেকেই ১৫০ টাকা করে কিনবে ভ্যাকসিন। টিকার দামের এই হেরফের নিয়ে এরপরই সরব হয় বিরোধী দলগুলি। এটিকে নির্বাচনের একটি ইস্যু করে তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশ্ন তোলেন, একই দেশে কেন্দ্রীয় সরকার আর বাকি রাজ্যগুলির জন্য ভ্যাকসিনের দাম আলাদা কেন। বিরোধিতা করেন বিভিন্ন দলের রাজনৈতিক নেতারা। স্বভাবতই দেশজুড়ে চাপের মুখে পড়েন কেন্দ্র। এই আবহে টিকা উত্পাদনকারী সংস্থাগুলিকে কেন্দ্রের দাম কমাতে বলা বেশ তাত্পর্যপূর্ণ। 

বন্ধ করুন