বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > India-China Border: চিনকে জবাব দিতে সীমান্তের পরিকাঠামো উন্নয়নে মন দিয়েছে ভারত, হিসেব দিলেন জয়শঙ্কর

India-China Border: চিনকে জবাব দিতে সীমান্তের পরিকাঠামো উন্নয়নে মন দিয়েছে ভারত, হিসেব দিলেন জয়শঙ্কর

ভারতীয় সেনা প্রতীকী ছবি  (PTI)

সীমান্তে আজ অনেক শক্তিশালী ভারত। পরিকাঠামোও উন্নত। জানালেন বিদেশমন্ত্রী।

সরকার সীমান্তের পরিকাঠামো ও যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত উপর ফোকাস করছে। গত ৯ বছরে সরকার এনিয়ে প্রচুর কাজ করেছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর চিন যে কাজ করেছে তার জবাব দিতে উপযুক্ত পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতও। সোমবার একথা জানিয়েছেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। 

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় একথা জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী। এদিকে সেই ২০২০ সালের এপ্রিল মে মাস থেকে চিন ভারত সীমান্তে সমস্যা প্রকট রূপ ধারণ করে। গালওয়ান সীমান্তে সংঘর্ষের জেরে চরম উত্তেজনা ছড়িয়েছিল চিন-ভারত সীমান্তে। তবে ভারতের বিদেশমন্ত্রী বার বারই বলে এসেছেন, ভারত-চিন সম্পর্ক কোনওদিনই স্বাভাবিক হবে না যতদিন না পর্যন্ত সীমান্তে শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় থাকবে না। 

এদিকে চিন সেই ১৯৯০ সাল থেকে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় তাদের দিকে নানা পরিকাঠামো বৃদ্ধির কাজ করে। এদিকে বিগত সরকারের আমলে কিছু ত্রুটিপূর্ণ পদক্ষেপের জেরে ভুগতে হয় গোটা দেশকে। এমনটাই মনে করছেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, চিনের দিকে পরিকাঠামো বৃদ্ধির জেরে তারা সহজেই পেট্রলিং করতে পারত।

অন্যদিকে বর্তমান পরিস্থিতির জন্য তিনি জানিয়েছেন, অতীতে চিনের বাহিনী গাড়িতে করে আসত আর আমাদের বাহিনী যেত খচ্চরের পিঠে চেপে। এখন আমরা বিরাট বাহিনীকে সীমান্তে মোতায়েন করতে পারি তার একটা বড় কারণ হল সেখানকার পরিকাঠামো বৃদ্ধি করা হয়েছে। চিন দ্রুত গতির সুবিধা পেয়েছে, আর আমরা যেটা প্রয়োজন সেটা করছি। সেটা তাদের পছন্দ বা অপছন্দ যাই হোক না কেন। জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী। 

জয়শঙ্কর জানিয়েছেন, ২০১৩-১৪ সালে বর্ডার রোড অর্গানাইজেশনের বার্ষিক বাজেট ছিল ৩,৭৮২ কোটি টাকা। আর ২০২৩-২৪ সালে সেটাই বেড়ে হয়েছে ১৪,৩৮৭ কোটি টাকা। তিনি জানিয়েছেন, ২০১৪ সালের পরে ভারতের সেনা মোতায়েন করা ও চিনের গতিবিধি কি রোধ করতে সক্ষম? জয়শঙ্করের জবাব, একদম, এনিয়ে কোনও প্রশ্নই হবে না। 

তিনি জানিয়েছেন ২০২০ সালে ভারতের সেনা দ্রুত সীমান্তে চলে গিয়েছিল কারণ সেখানকার পরিকাঠামো অনেক উন্নত হয়ে গিয়েছে। তবে ২০১৪ সালে যদি এটা হত তবে আমাদের অনেক সমস্যা হত। তারা পরিকাঠামো উন্নত করেছে কিন্তু আমরা সেটা করতে পারিনি। 

২০১৪-২২ এর মধ্য়ে ৬৮০৬ কিমি রাস্তা সীমান্ত এলাকায় তৈরি হয়েছে। আর ২০০৮-১৪ সাল পর্যন্ত মাত্র ৩৬১০ কিমি রাস্তা তৈরি হয়েছিল সীমান্তে। 

 

ঘরে বাইরে খবর
বন্ধ করুন

Latest News

ভারত ম্যাট্রিমনি, জীবনসাথী অ্য়াপ নিয়ে কড়া অবস্থান গুগলের,শেয়ারদর হু হু করে কমছে 'প্রযোজকের সঙ্গে শুলে...' নায়িকা হওয়ার টোপ দিয়ে অঙ্কিতাকে কুপ্রস্তাব! তারপর? এবার HS-এ মোবাইল নিয়ে ধরা পড়েছে ৪১ জন, কড়া ব্যবস্থার কথা জানালেন ব্রাত্য এক ছবিতে শাহরুখ-সুহানা, কোন হলিউড ফ্লিক থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে তৈরি হবে ‘কিং’ বাংলায় ঝড় তোলার আগে ঝাড়খণ্ডে সার কারখানা সহ ৩৫৭০০ কোটির প্রকল্প উপহার মোদীর 'বাবা আর আমি…' বিজেপিতে যোগের জল্পনা নিয়ে খোলাখুলি জবাব দিলেন কমল নাথের পুত্র আবার শিক্ষক নিয়োগের পথে হাঁটতে চলেছে এসএসসি, আইনি পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে মা হতে চাই! ডিভোর্সের খবরে সিলমোহর, জোড়া সন্তান মানুষ করতে ইচ্ছুক শোলাঙ্কি আমেরিকায় পড়তে গিয়ে খুন নৃত্যশিল্পী অমরনাথ! রহস্যময় ফোন থেকে কী জানল পরিবার? রঞ্জি না খেলায় ইশান, শ্রেয়সের বিরুদ্ধে বিসিসিআই-এর কড়া পদক্ষেপকে সমর্থন কপিলের

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.