বাড়ি > ঘরে বাইরে > লকডাউনের মাঝে বিয়ে করছেন বিজয়নের মেয়ে বীণা, পাত্র DYFI সভাপতি রিয়াস
১৫ জুন তিরুবনন্তপুরমে আনুষ্ঠানিক বিয়ে সম্পন্ন হবে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের মেয়ে বীণার সঙ্গে ডিওয়াইএফআই-এর জাতীয় সভাপতি পি এ মহম্মদ রিয়াসের।
১৫ জুন তিরুবনন্তপুরমে আনুষ্ঠানিক বিয়ে সম্পন্ন হবে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের মেয়ে বীণার সঙ্গে ডিওয়াইএফআই-এর জাতীয় সভাপতি পি এ মহম্মদ রিয়াসের।

লকডাউনের মাঝে বিয়ে করছেন বিজয়নের মেয়ে বীণা, পাত্র DYFI সভাপতি রিয়াস

  • পাত্র-পাত্রী দুজনেরই এবার দ্বিতীয় বিয়ে হতে চলেছে। দুজনেরই প্রথম বিয়ে শেষ পর্যন্ত আইনি বিচ্ছেদের কারণে ভেঙে যায়।

লকডাউনের বাজারে বিয়ে করতে চলেছেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের মেয়ে, পেশায় সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার বীণা থাইক্কানডিইল। ডিওয়াইএফআই-এর জাতীয় সভাপতি পি এ মহম্মদ রিয়াসের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হতে চলেছে।

পাত্র-পাত্রী দুজনেরই এবার দ্বিতীয় বিয়ে হতে চলেছে। দুজনেরই প্রথম বিয়ে শেষ পর্যন্ত আইনি বিচ্ছেদের কারণে ভেঙে যায়। ২০০২ সালে প্রথম বিয়ে করেছিলেন রিয়াস। প্রথম পক্ষের স্ত্রীর সূত্রে তাঁর দুটি মেয়েও রয়েছে। 

অন্য দিকে, তিন বছর আগে বিয়ে করলেও তা টেকেনি বীণার। সেই সম্পর্কের জেরে তিনিও এক কন্যা সন্তানের জননী।

বেঙ্গালুরুতে বীণার আইটি ব্যবসা রয়েছে। সূত্রে খবর, ইতিমধ্যে স্পেশ্যাল ম্যারেজ অ্যাক্টে আইনি বিয়ে সেরে ফেলেছেন যুগল। আগামী ১৫ জুন তিরুবনন্তপুরমে আনুষ্ঠানিক বিয়ে সম্পন্ন হবে। অনুষ্ঠানে শুধুমাত্র ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজনরাই নিমন্ত্রিত হয়েছেন।

প্রাক্তন আইপিএস অফিসার পি এম আবদুলকাদেরের ছেলে রিয়াস স্কুলবেলা থেকেই রাজনীতি করছেন। এর আগে তিনি ডিওয়াইএফআই-এর যুগ্ম জাতীয় সম্পাদকের দায়িত্ব সামলেছেন। ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি সংগঠনের জাতীয় সভাপতি নির্বাচিত হন। 

২০০৯ সালে লোকসভা নির্বাচনে কোঝিকোড় কেন্দ্র থেকে সিপিএম প্রার্থী হিসেবে লড়লেও কংগ্রেসের এম কে রাঘবনের কাছে মাত্র ৮৩৮ ভোটে হেরে যান রিয়াস। 

বন্ধ করুন