বাড়ি > ঘরে বাইরে > 'অসমকে বিচ্ছিন্ন' মন্তব্যে শারজিলের বিরুদ্ধে মামলা রুজু মণিপুর-অরুণাচল-দিল্লিতে
শারজিল ইমাম (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
শারজিল ইমাম (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

'অসমকে বিচ্ছিন্ন' মন্তব্যে শারজিলের বিরুদ্ধে মামলা রুজু মণিপুর-অরুণাচল-দিল্লিতে

  • শারজিল ইমামের বিরুদ্ধে শনিবার মামলা রুজু করেছিল অসম পুলিশ। রবিবার তাঁর নামে আরও তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে শাহিনবাগ আন্দোলনের অন্যতম উদ্যোক্তার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল দিল্লি পুলিশ। পাশাপাশি, মণিপুর ও অরুণাচল প্রদেশ পুলিশও শারজিলের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে।

শনিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে যায়। সেখানে শারজিলকে বলতে শোনা যায়, 'আমাদের কাছে পাঁচ লাখ লোক থাকলে আমরা উত্তর-পূর্বকে পাকাপাকিভাবে ভারত থেকে বিচ্ছিন্ন করতে পারি। পাকাপাকি না হলেও এক-দু'মাসের জন্য করতে পারি।‘ (ভিডিয়োটির সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস)।

সেই ভিডিয়োর বক্তব্য নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। সেদিনই শারজিলের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে অসম পুলিশ। রবিবার মণিপুর ও অরুণাচল পুলিশ শারজিলের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে। অরুণাচলের মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু একটি টুইট বার্তায় বলেন, 'ভারতের অন্যান্য অংশ থেকে যেভাবে অসম ও উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিকে (বিচ্ছিন্ন করার) প্ররোচনা দেওয়া হচ্ছে, সাম্প্রদায়িক বিভেদ তৈরি করা হচ্ছে, সার্বভৌমত্ব ও ভারতের অখণ্ডতার উপর আঘাত হানা হচ্ছে, তা বরদাস্ত করা হবে না।'

রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে শারজিলের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে মামলা রুজু করেছে ইটানগর ক্রাইম ব্রাঞ্চ। একই অভিযোগে শারজিলের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের কথা জানিয়েছেন মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিং।

পাশাপাশি, দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চও শারজিলের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে বলে সংবাদসংস্থা এএনআই জানিয়েছে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩ ধারায় (দাঙ্গার উদ্দেশ্যে প্ররোচনা দেওয়া) মামলা রুজু হয়েছে।

এদিকে, শারজিলের মন্তব্য থেকে নিজেদের দূরে সরিয়ে নিয়েছেন শাহিনবাগের আন্দোলনকারীরা। তাঁদের দাবি, শাহিনবাগ চত্বরে এরকম কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

বন্ধ করুন