বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ত্রিপুরা বিজেপির সহ-সভাপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ মমতার 'দূতের', বড় 'খেলা' TMC-র?
শান্তনু সেন
শান্তনু সেন

ত্রিপুরা বিজেপির সহ-সভাপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ মমতার 'দূতের', বড় 'খেলা' TMC-র?

  • তৃণমূল সাংসদের অবশ্য মত, তাঁর সঙ্গে ত্রিপুরা বিজেপির সহ সভাপতির এই সাক্ষাৎ নিতান্তই সৌজন্য সাক্ষাৎ।

বাংলার পর তৃণমূলের নজর ইতিমধ্যে গিয়ে পড়েছে ত্রিপুরায়। ত্রিপুরায় অনেকেই এখন সিপিএম, কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিতে ইচ্ছাপ্রকাশ করছেন। বিজেপি ছেড়ে অনেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। এই পরিস্থিতিতে ত্রিপুরা বিজেপির সহ-সভাপতি অশোক দেববর্মার সঙ্গে দেখা করলেন তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন।

বৈঠক প্রসঙ্গে তৃণমূল সাংসদের অবশ্য বক্তব্য, তাঁর সঙ্গে ত্রিপুরা বিজেপির সহ সভাপতির এই সাক্ষাৎ নিতান্তই সৌজন্য সাক্ষাৎ। কিন্তু রাজনৈতিক মহলে জল্পনা থেমে থাকেনি। প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কী বিজেপি সহ সভাপতি অশোক দেববর্মা তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন। এই প্রসঙ্গে অবশ্য অশোকবাবুর কোনও প্রতিক্রিয়া অবশ্য মেলেনি। তবে বিজেপি শিবিরের মধ্যে আশঙ্কা দানা বাধছে, তাহলে হয়ত ত্রিপুরায় বিজেপি শিবিরের মধ্যেও ভাঙন ধরতে পারে।

এদিকে কিছুদিন আগেই ত্রিপুরায় পাঁচ বারের বিধায়ক তথা প্রাক্তন বিধানসভার অধ্যক্ষ জিতেন সরকারের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা পাকা হয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জিতেনবাবু তৃণমূলে যোগ দিতে চেয়ে তাঁকে চিঠি দিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। কিছুদিন আগেই কংগ্রেস নেতা সুবল ভৌমিক তৃণমূলে লিখিয়েছেন। তৃণমূলের নেতা–নেত্রীরা ত্রিপুরায় অনেককেই তৃণমূলে যোগদান করিয়েছেন। সম্প্রতি রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু ত্রিপুরায় গিয়ে তৃণমূলকে ক্ষমতায় আনার বার্তা দিয়েছেন। তবে তৃণমূল সাংসদের খোদ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে দেখা করার ঘটনা খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন